বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক সেরা সময়ে: কংগ্রেস সদস্য শিলা জ্যাকসন লি

  • নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-24 16:44:06 BdST

bdnews24
যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম গত ১৮ জুন হিউস্টনে মার্কিন কংগ্রেস সদস্য শিলা জ্যাকসন লির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

বাংলাদেশকে যুক্তরাষ্ট্রের ‘গুরুত্বপূর্ণ মিত্র রাষ্ট্র’ হিসেবে বর্ণনা করে মার্কিন কংগ্রেস সদস্য শিলা জ্যাকসন লি বলেছেন, দুই দেশ এখন সম্পর্কের ‘সেরা সময়ে’  রয়েছে।

গত ১৮ জুন হিউস্টনে নিজের কার্যালয়ে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলামের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

সরকারের এক তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, কংগ্রেসে টেক্সাসের প্রতিনিধিত্ব করা এই ডেমোক্র্যাট সদস্য বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য, কোভিড-১৯ সহযোগিতা এবং রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সহযোগিতা বাড়ানোর বিষয়ে তার আগ্রহের কথা বলেন।

“কংগ্রেস সদস্য লি বাংলাদেশে এক মিলিয়নের বেশি নিপীড়িত রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করেন এবং এই মানবিক সঙ্কট সমাধানে মার্কিন কংগ্রেসে তার অব্যাহত প্রচেষ্টার আশ্বাস দেন।”

যুক্তরাষ্ট্রের হাতে থাকা করোনাভাইরাসের উদ্বৃত্ত টিকা যাতে বাংলাদেশও পায়, সে বিষয়ে এই কংগ্রেস সদস্যকে সহযোগিতা করার অনুরোধ করেন রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম।

জবাবে লি এ বিষয়ে সহযোগিতা করার প্রতিশ্রুতি দেন এবং বাংলাদেশ ন্যায্যতার ভিত্তিতেই ভ্যাকসিনের ভাগ পাবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

তিনি মার্কিন কংগ্রেস ও সরকারের পাশাপাশি বাংলাদেশের স্বার্থ রক্ষায় বাংলাদেশ সংক্রান্ত কংগ্রেসীয় ককাসকে পুনরুজ্জীবিত করতে সহায়তা করার আগ্রহ প্রকাশ করেন বলেও তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়। 

সেখানে বলা হয়, শিলা জ্যাকসন লি যুক্তরাষ্ট্রের, বিশেষ করে টেক্সাসের সাথে বাংলাদেশের নাগরিক পর্যায়ে যোগাযোগকে উৎসাহিত করেন এবং এ ক্ষেত্রে হিউস্টনের সাথে বাংলাদেশের একটি শহরের মধ্যে ‘সিস্টার-সিটি নেটওয়ার্ক’ প্রতিষ্ঠায় ধারণার কথা বলেন।

এদিকে ২১ জুন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিউস্টনের মেয়র সিলভেস্টার টার্নারের সঙ্গেও তার কার্যালয়ে বৈঠক করেন। সেখানে তাদের মধ্যে জ্বালানি, বাণিজ্য, বন্দর ব্যবস্থাপনা এবং চিকিৎসা ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়াতে ‘ফলপ্রসূ আলোচনা’ হয় বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়।

তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, “তারা হিউস্টন এবং চট্টগ্রামের মধ্যে ‘সিস্টার-সিটি নেটওয়ার্ক’ স্থাপনের বিষয়েও আলোচনা করেন। এই জাতীয় উদ্যোগ কার্যকরভাবে আমাদের ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক সম্পর্কের অগ্রগতিতে পরিপূরক ভূমিকা রাখবে বলে উভয়ে সম্মত হন।”

রাষ্ট্রদূত শহীদুল ইসলাম ‘বাংলাদেশ আমেরিকান সোসাইটি অফ গ্রেটার হিউস্টন’ এবং ‘বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন হিউস্টন-এর যৌথ উদ্যোগে একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও যোগ দেন।

কংগ্রেসের সদস্য শিলা জ্যাকসন লি, টেক্সাস প্রতিনিধি পরিষদের ডেমোক্র্যাটিক সদস্য রন রেনল্ডস, হিউস্টনে বাংলাদেশের অনারারি কনসাল মার্টি ম্যাকভি, হ্যারিস কাউন্টি প্রিসিন্ট-২ এর কমিশনার আদ্রিয়ান গার্সিয়া, হিউস্টন বন্দরের বাণিজ্য উন্নয়ন পরিচালক ডমিনিক ডি সান এবং হিউস্টনে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মার্কিন সিনেটর টেড ক্রুজ বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে টেক্সাসে স্বাগত জানিয়ে একটি সংবর্ধনাপত্র পাঠান। সেখানে তিনি বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক আরো জোরদার করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

সিনেটর ক্রুজ মার্কিন সিনেটে যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ বন্ধুত্বকে তুলে ধরতে অব্যাহত সহায়তারও আশ্বাস দিয়েছেন বলে তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়।

প্রবাস পাতায় আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাস জীবনে আপনার ভ্রমণ,আড্ডা,আনন্দ বেদনার গল্প,ছোট ছোট অনুভূতি,দেশের স্মৃতিচারণ,রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক খবর আমাদের দিতে পারেন। লেখা পাঠানোর ঠিকানা probash@bdnews24.com। সাথে ছবি দিতে ভুলবেন না যেন!