শক্তিশালী কাতারের সামনে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

  • মোহাম্মদ জুবায়ের, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-10-09 20:50:21 BdST

bdnews24

১৯৭৯ সালের পর কেটে গেছে চার দশক। এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে সেই ড্রয়ের পর অনেক পথ পেরিয়ে কাতার এখন এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন। বাঁক-বদলের মধ্যে দিয়ে গেছে বাংলাদেশও। কিন্তু পিছিয়ে পড়াদের দলে। দুই দল এবার মুখোমুখি বিশ্বকাপ বাছাইয়ে। শক্তি-সামর্থ্য, পরিসংখ্যান সবকিছুতে এগিয়ে থাকা কাতারকে শক্তিশালী মানছেন জেমি ডে। তবে এক বছরের বেশি সময় ধরে গড়া নিজের দল নিয়ে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ কোচ।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার ২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে মুখোমুখি হবে দুই দল। সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হওয়া ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বিটিভি ও বাংলা টিভি।

দুই দল এ পর্যন্ত মুখোমুখি হয়েছে চারবার। এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের সেই ১-১ ড্র বাংলাদেশের একমাত্র প্রাপ্তি। পরের তিন ম্যাচে যথাক্রমে ৪-০, ৪-১ ও ৩-০ গোলে হার। ২০০৬ সালের এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের এক যুগেরও বেশি সময় পর ফের মুখোমুখি হচ্ছে দল দুটি।

বাছাইয়ে আগামী বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতারের পথচলা শুরু দুর্দান্তভাবে; আফগানিস্তানকে ৬-০  ব্যবধানে উড়িয়ে। বাংলাদেশের শুরুটা আফগানিস্তানের কাছে ১-০ গোলে হেরে। অবশ্য নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতের সঙ্গে কাতার ড্র করেছে নিজেদের মাঠে।

হার দিয়ে বাছাই শুরু করা জীবন-জুয়েলদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে ভুটানের সঙ্গে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। জিতেছে দুটিতেই। প্রথম ম্যাচে জোড়া গোল করেন ফরোয়ার্ড নাবীন নেওয়াজ জীবন। মিডফিল্ডার বিপলু আহমেদ, ফরোয়ার্ড রবিউল হাসান পেয়েছিলেন জালের দেখা। পরের ম্যাচে নায়ক ডিফেন্ডার ইয়াসিন খান। দলের বর্তমান অবস্থা নিয়ে আশবাদী বাংলাদেশ কোচ।

“আমরা জানি এটা কঠিন ম্যাচ হবে। ছেলেরা গত দশ দিন ধরে কঠোর পরিশ্রম করেছে। ভুটানের বিপক্ষে দুই প্রীতি ম্যাচের জয়ে প্রস্তুতি ভালো হয়েছে; দল আত্মবিশ্বাসী। ভালো একটা ফল পেতে হলে আমাদের কাল সেরাটা খেলতে হবে।”

“কাতার এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন। চমৎকার দল। খুব ভালো কয়েকজন খেলোয়াড় আছে তাদের। তবে আমরাও কাতারকে আটকানোর উপায় নিয়ে, সম্ভাব্য সুযোগ কাজে লাগানো এবং প্রতিপক্ষের দুর্বলতা নিয়ে কাজ করেছি। সব দলই জিততে চায় এবং আমরাও জিততে চাই।”

“কাতার জয়ের প্রত্যাশা করবে কিন্তু আমার ছেলেরা যতক্ষণ সেরাটা দিবে এবং তারা যেমনটা দেখিয়েছে, সেভাবে যদি পারফরম করে…যদি ভাগ্যের ছোঁয়া পাওয়া যায়…আপনি কখনোই বলতে পারবেন না কি হতে পারে।”

ভুটানের বিপক্ষে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে চোট পেয়ে ছিটকে গেছেন সুশান্ত ত্রিপুরা। কার্ডের খাড়ায় বিশ্বনাথ ঘোষ আর চোটের কারণে আগে থেকে ছিটকে যাওয়া মাশুক মিয়া জনির অনুপস্থিতিতে বাংলাদেশের রক্ষণ হয়ে গেছে নড়বড়ে।

ইয়াসিন-রায়হান-রহমতদের সামলাতে হবে আলমোয়েজ আলির মতো ক্ষুরধার ফরোয়ার্ডকে। গত এশিয়ান কাপে ৯ গোল করে হয়েছিলেন টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা। আফগানিস্তানের বিপক্ষেও হ্যাটট্রিক করেন ২৩ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড।

মঙ্গলবার রাতে ঢাকায় এসে বুধবার সন্ধ্যায় প্রথম প্রস্তুতি নিয়েছে কাতার। টার্ফে খেলতে অভ্যস্ত দলটি। প্রস্তুতিতে স্বাভাবিকভাবে ঘাসের মাঠে মানিয়ে নেওয়ার বিষয়টি গুরুত্ব পাবে। কাতারের স্প্যানিশ কোচ ফেলিক্স সানচেস ঘাসের মাঠ বা বৃষ্টি হলে সমস্যা হবে কিনা এমন প্রশ্নে পরিষ্কার বলে দিলেন, “যেকোনো পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার মতো একদল পেশাদার খেলোয়াড় আমাদের আছে।”

একই প্রশ্নে বাংলাদেশ কোচ ডে অবশ্য দাবি করলেন সুবিধা পাওয়ার কথা।

“বৃষ্টি হলে মাঠ অবশ্যই কাল আমাদের সাহায্য করবে কিন্তু কন্ডিশন যাই হোক না কেন, ভালো ফল পেতে হলে আমাদেরও সেরাটা খেলতে হবে। সম্প্রতি যেভাবে পারফরম করেছি তার চেয়ে ভালো খেলতে হবে। ফুটবলে সবসময়ই বিস্ময়কর অনেক কিছু থাকে।”


ট্যাগ:  ফুটবল  বাংলাদেশ  বিশ্বকাপ বাছাই