করোনাভাইরাস: উৎকণ্ঠা নিয়েও কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন বসুন্ধরা কোচ

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-24 17:31:10 BdST

bdnews24

আত্মীয়-স্বজন, পরিবার-পরিজন স্পেনে। স্ত্রী ঘুরতে গেছেন ভারতের গোয়ায়। অস্কার ব্রুসন নিজে বাংলাদেশে। এই তিন দেশেও হানা দিয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। স্বাভাবিকভাবে বড্ড উৎকণ্ঠায় দিন কাটছে বসুন্ধরা কিংস কোচের। তবে পেশাদারী ভুবনে তো সবকিছু থমকে থাকে না কখনোই। উদ্বেগের এই দিনরাত্রিতেও যেমন নিজের কাজ করে যাচ্ছেন প্রিমিয়ার লিগের শিরোপাধারীদের কোচ। 

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত দেশগুলোর মধ্যে একটি স্পেন। এখনও মহামারী আকারে না হলেও ভারত ও বাংলাদেশে এর সংক্রমণ বাড়ছে প্রতিদিনই। বাড়ছে ব্রুসনের উৎকণ্ঠাও। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানালেন, অনেক দিকের খবর রাখতে হচ্ছে তাকে।

“স্পেনের সরকার আগামী ১২ এপ্রিল পর্যন্ত জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। এর অর্থ হচ্ছে, সবাইকে ঘরে থাকতে হবে। হাসপাতালগুলোতে যে বিপর্যয়কর অবস্থা তৈরি হয়েছে, তা এড়াতে চাইছে সরকার।”

“আমার স্ত্রী এখন গোয়াতে আছে, দ্রুতই ফিরবে সেখান থেকে। পরিবার এবং বন্ধুরা স্পেনে ঘরবন্দী হয়ে আছে। নিয়মিত তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে।”

“এখন সবাই করোনাভাইরাস নিয়ে সতর্ক। কিন্তু সামনের সপ্তাহটা আরও কঠিন হবে বলে আমি মনে করি। তবে আশা করি এপ্রিলের শেষ দিকে পরিস্থিতির উন্নতি হবে দেখা যাক। আশা করি স্পেন, বাংলাদেশ সবখানেই পরিস্থিতি দ্রুতই ভালো হয়ে যাবে।”

২০১৮ সালে দায়িত্ব নেওয়া ব্রুজন প্রথম মৌসুমেই বসুন্ধরা কিংসকে লিগ শিরোপা এনে দেওয়ার নেপথ্যের কারিগর। জিতেছেন স্বাধীনতা কাপ; ফেডারেশন কাপও।

চলতি লিগে সময়টা ভালো যাচ্ছে না বসুন্ধরা কিংসের। ছয় ম্যাচে তিন জয় ও এক ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে চ্যাম্পিয়নরা। লিগের সবশেষ ম্যাচে তিন গোলে এগিয়ে গিয়েও চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে ৪-৩ ব্যবধানে হেরেছিল তারা।

এএফসি কাপে অবশ্য উড়ন্ত সূচনা পেয়েছিল বসুন্ধরা কিংস। মালদ্বীপের দল টিসি স্পোর্টসকে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল তারা।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে এএফসি কাপ, লিগ সবই বন্ধ। অখণ্ড অবসরে বসে নেই ৪২ বছর বয়সী এই স্প্যানিশ কোচ। উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যের চালিয়ে যাচ্ছেন কাজ। কষছেন মাঠের ছক।

“ম্যাচ দেখে, আমাদের শেষ ম্যাচের (চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে হার) বিশ্লেষণ করে বেশি সময় কাটছে। আমাদের পরবর্তী প্রতিপক্ষের ম্যাচও দেখছি। ছেলেরা যেন সেরা ফিটনেস নিয়ে অনুশীলনে ফিরতে পারে, সেজন্যও কোচিং স্টাফদের সঙ্গে নিয়ে কাজ করছি।”