মিলানে বিধ্বস্ত ইউভেন্তুস

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-07-08 03:45:38 BdST

ঘুরে দাঁড়ানোর দারুণ এক গল্প লিখল এসি মিলান। দুই গোলে পিছিয়ে পড়ার পরও দলটি জিতল দুই গোলের ব্যবধানে। সান সিরোয় বিধ্বস্ত হলো ইউভেন্তুস।

সেরি আর ম্যাচে মঙ্গলবার রাতে ৪-২ গোলে জিতেছে মিলান। সব কটি গোল হয়েছে দ্বিতীয়ার্ধে।

২০১৬ সালের পর ইতালির শীর্ষ লিগে ইউভেন্তুসের বিপক্ষে জিতল মিলান। এবারের আসরে সাত ম্যাচ পর হারল মাওরিসিও সাররির দল।

চলতি মৌসুমে দুই দলের তিন দেখায় সব মিলিয়ে বল জালে গেছে স্রেফ তিনবার। গোল খরা দেখা গেছে প্রথমার্ধেও। আক্রমণের কমতি ছিল না, সুযোগও এসেছিল বেশ কয়েকটি, কিন্তু সেগুলো কাজে লাগাতে পারেনি কেউই।

ইউভেন্তুস ফরোয়ার্ড ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর একটি চেষ্টাও থাকেনি লক্ষ্যে। গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে দুটি ভালো সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন মিলান স্ট্রাইকার জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ।

পাওলো দিবালার নিষেধাজ্ঞায় শুরুর একাদশে সুযোগ পাওয়া গনসালো হিগুয়াইনের পা থেকে আসে ইউভেন্তুসের বিরতির আগে লক্ষ্যে থাকা একমাত্র শটটি। প্রথমার্ধের শেষ দিকে ঝাঁপিয়ে গড়ানো শট ব্যর্থ করে দেন মিলান গোলরক্ষক।

খরার পর যেন বানের জলের মতো এলো গোল। এক অর্ধেই ছয়টি!

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আদ্রিয়াঁ রাবিওর একক নৈপুণ্যে এগিয়ে যায় ইউভেন্তুস। ৪৭তম মিনিটে মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এগিয়ে যান রাবিও। আশেপাশে থাকা মিলানের পাঁচ খেলোয়াড়কে এড়িয়ে ডি-বক্সের মুখে গিয়ে বুলেট গতির শটে জাল খুঁজে নেন ফরাসি এই মিডফিল্ডার।

৫৩তম মিনিটে জালের দেখা পান রোনালদো। হুয়ান কুয়াদরাদোর উঁচু করে বাড়ানো বল হেড করে ক্লিয়ার করার চেষ্টায় এক সঙ্গে লাফ দেন মিলানের দুই সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার। একে অপরের সঙ্গে ধাক্কা লাগায় কেউ পাননি বলের নাগাল। তাদের ছাড়িয়ে এগিয়ে যাওয়া রোনালদো নির্বিঘ্নে সারেন বাকি কাজ।

চলতি আসরে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ডের এটি ২৬তম গোল।

খেলার ধারার বিপরীতে ৬২তম মিনিটে ব্যবধান কমায় মিলান। লিওনার্দো বোনুচ্চির হ্যান্ডবলের জন্য ভিএআরের সাহায্য নিয়ে পেনাল্টির বাঁশি বাজার রেফারি। সফল স্পট কিকে দলকে ম্যাচে ফেরান ইব্রাহিমোভিচ।

এই গোলে যেন বদলে যায় আগের ম্যাচে লাৎসিওকে হারানো মিলান। ৬৬তম মিনিটে সমতা ফেরান ফ্রাঙ্ক কেসি। ইব্রাহিমোভিচের কাছ থেকে বল পেয়ে ইউভেন্তুস গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে জালে পাঠান কোত দা ভোয়ার এই মিডফিল্ডার।

পরের মিনিটে আবার গোল! এবার আন্তে রেবিচের কাছ থেকে বল নিয়ে কিছুটা এগিয়ে গিয়ে কাছের পোস্ট ঘেঁষে জাল খুঁজে নেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড রাফায়েল লিয়াও।

৮০তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ায় মিলান। এই গোল যেন আলেক্স সান্দ্রোর উপহার। নিজেদের ডি-বক্সে বল বাড়ান এই ব্রাজিলিয়ান। জিয়ানকোমো বোনাভেনচুরা বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে খুঁজে নেন অরক্ষিত রেবিচকে। বাকিটা সহজেই সারেন তিনি।

পরেও সুযোগ এসেছিল দুই দলের সামনে। তবে কাজে লাগাতে পারেনি কেউ।

৩১ ম্যাচে চতুর্থ হারের তেতো স্বাদ পেয়েছে ইউভেন্তুস। ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থানেই আছে দলটি। এর আগে দিনের অবনমন অঞ্চলের দল লেসের বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে গেছে লাৎসিও। শেষ পাঁচ ম্যাচে এটি টানা দ্বিতীয় ও সব মিলিয়ে তৃতীয় হার। ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আছে তারা।

৩১ ম্যাচে অষ্টম জয়ে ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে মিলান।


ট্যাগ:  রোনালদো  সেরি আ  ইউভেন্তুস  ইব্রাহিমোভিচ  এসি মিলান