পরিসংখ্যানে মেসি-লেভানদোভস্কি দ্বৈরথ

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-08-14 18:32:14 BdST

bdnews24

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এবারের আসরে গোলের পাতায় রবের্ত লেভানদোভস্কি যতটা উজ্জ্বল, তার ধারে কাছেও নেই লিওনেল মেসি। দুজনে খেলেছেন সাতটি করে ম্যাচ। লেভানদোভস্কি ১৩ গোল নিয়ে শীর্ষে। মাত্র ৩ গোল নিয়ে ঢের পেছনে বার্সেলোনা অধিনায়ক!

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কোয়ার্টার-ফাইনালে শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখ। স্বাভাবিকভাবে দুই দলের আক্রমণভাগের সবচেয়ে বড় নির্ভরতা মেসি ও লেভানদোভস্কি আলোচনায়। বার্সা-বায়ার্ন লড়াইয়ের ভেতরে চলবে মেসি আার লেভানদোভস্কির দ্বৈরথও। পরিসংখ্যানে দুজনের লড়াই এবং আরও অনেক বিষয় নিয়ে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম-এর পাঠকদের জন্য এই আয়োজন।

ইউরোপ সেরা প্রতিযোগিতার চলতি আসরে তো বটেই, লিগের গোলের হিসাবেও মেসির চেয়ে অনেক এগিয়ে লেভানদোভস্কি। অবশ্য দুজনেই নিজেদের লিগে সেরা গোলদাতার পুরস্কার জিতেছেন ২০১৯-২০ মৌসুমে।

 

খেলোয়াড়

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

বুন্ডেসলিগা/লা লিগা

রবের্ত লেভানদোভস্কি

৭ ম্যাচে ১৩ গোল

৩১ ম্যাচে ৩৪ গোল

লিওনেল মেসি

৭ ম্যাচে ৩ গোল

৩৩ ম্যাচে ২৫ গোল

২০১৪/১৫ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিলেন দুজন; সেটা ছিল বায়ার্নে লেভানদোভস্কির প্রথম মৌসুমের শেষ দিক। সেবার জিতেছিলেন মেসি।

প্রথম লেগে বার্সেলোনার ৩-০ ব্যবধানের জয়ে জোড়া গোল করেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। ফিরতি লেগে লেভানদোভস্কি বায়ার্নকে ২-২ সমতায় ফেরানোর পর তার দল জেতে ৩-২ গোলে। কিন্তু দুই লেগ মিলিয়ে হেরে বিদায় নেয় জার্মান দলটি। সেবার ইউভেন্তুসকে হারিয়ে শিরোপা ঘরে নেয় মেসির বার্সেলোনা।

জাতীয় দলের হয়ে কখনও মুখোমুখি হননি দুজনে। ২০১১ সালে ওয়ারশতে প্রীতি ম্যাচ খেলেছিল আর্জেন্টিনা ও পোল্যান্ড। পোলিশদের ২-১ গোলে জেতা ম্যাচে খেলেছিলেন লেভানদোভস্কি; কিন্তু আর্জেন্টিনার হয়ে ওই ম্যাচে খেলেননি মেসি।

দুজনেই তিরিশ পেরিয়েছেন। উচ্চতার দিক থেকে এগিয়ে থাকায় মেসির চেয়ে কর্নারে একটু হলেও বাড়তি সুবিধা পান লেভানদোভস্কি; আবার প্রতিপক্ষের মার্কিংয়ে থাকার সম্ভাবনাও তার বেশি।

           

 

মেসি

লেভানদোভস্কি

বয়স

৩৩ বছর

৩১ বছর

উচ্চতা

১ দশমিক ৭০ মিটার

১ দশমিক ৮৪ মিটার

এরই মধ্যে চারবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন মেসি। সবশেষ ২০১৫ সালে। সেখানে লেভানদোভস্কির এখনও এই ট্রফি তুলে ধরার সৌভাগ্য হয়নি। ২০১৩ সালে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডে খেলার সময় এটা ছোঁয়ার খুব কাছাকাছি এসেছিলেন পোলিশ ফরোয়ার্ড; কিন্তু বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে লন্ডনের ফাইনালে ২-১ গোলে হেরে স্বপ্ন ভাঙে তার।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

মেসি

লেভানদোভস্কি

ম্যাচ

১৪২টি

৮৭টি

গোল

১১৫টি

৬৬টি

গোল গড়

০ দশমিক ৮১

০ দশমিক ৭৬

 

ঘরোয়া লিগ

মেসি

লেভানদোভস্কি

ম্যাচ

৪৫৩টি

৪৩৮টি

গোল

৪৩৩টি

৩০৪টি

গোল গড়

০ দশমিক ৯৬

০ দশমিক ৬৯

 

ক্লাব ফুটবলের সিনিয়র ক্যারিয়ারে ১৬ মৌসুমের মধ্যে ১০টিতে লিগ শিরোপা জিতেছেন মেসি। ১৪ মৌসুমের মধ্যে ৯টিতে জিতেছেন লেভানদোভস্কি। অবশ্য দুজনের পথচলায় ভিন্নতা ছিল। মেসি সবগুলো জিতেছেন বার্সেলোনার হয়ে। বায়ার্ন, বরুশিয়া এবং পোলিশ লিগের দল পোজনানের জার্সিতে লিগ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন লেভানদোভস্কি।


ট্যাগ:  বায়ার্ন মিউনিখ  চ্যাম্পিয়ন্স লিগ  বার্সেলোনা  মেসি  লেভানদোভস্কি