দারুণ জয়ের পরও পাঁচেই ইউভেন্তুস

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-05-13 02:39:37 BdST

ম্যাচের প্রথম ভাগে কিছুটা ভুগলেও বিরতির আগেই দারুণ দুটি গোলে নিয়ন্ত্রণ নিল ইউভেন্তুস। পরে দ্বিতীয়ার্ধে খুঁজে পেল ছন্দ। আক্রমণাত্মক ফুটবলে চ্যালেঞ্জ জানানো সাস্সুয়োলোকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আশা বাঁচিয়ে রাখল আন্দ্রেয়া পিরলোর দল।

প্রতিপক্ষের মাঠে বুধবার রাতে সেরি আর ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে ইউভেন্তুস। আদ্রিঁও রাবিও দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। গিয়াকোমো রাসপাদোরি ব্যবধান কমানোর পর গত ৯ বারের চ্যাম্পিয়নদের তৃতীয় গোলটি করেন পাওলো দিবালা।

শীর্ষ চারের লড়াইয়ে থাকা অন্য দলগুলোও জয় পাওয়ায় আগের মতোই পয়েন্ট তালিকার পাঁচ নম্বরেই আছে ইউভেন্তুস।

গত জানুয়ারিতে আসরে প্রথম দেখায়ও সাস্সুয়োলোকে একই ব্যবধানে হারিয়েছিল ইউভেন্তুস।

চলতি মৌসুমে তাদের পারফরম্যান্সে সবচেয়ে বড় অভাব ধারাবাহিকতার। এই ম্যাচেও দেখা গেছে তা। প্রথমার্ধে বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণেও আধিপত্য করে সাস্সুয়োলো।

তবে ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় ভুগতে হয় পয়েন্ট তালিকার আট নম্বর দলটিকে। অন্যদিকে, তুলনামুলক কম সুযোগ তৈরি করেও দারুণ দুটি গোলে বিরতির আগে নিয়ন্ত্রণ নেয় ইউভেন্তুস।

পঞ্চদশ মিনিটেই বিপদে পড়তে পারতো তারা, বেঁচে যায় জানলুইজি বুফ্ফনের নৈপুণ্যে। প্রতিপক্ষের ফরোয়ার্ড রাসপাদোরিকে ডি-বক্সে লিওনার্দো বোনুচ্চি ফাউল করলে পেনাল্টি পায় সাস্সুয়োলো। দোমেনিকো বেরার্দির স্পট কিক ঝাঁপিয়ে রুখে দেন ৪৩ বছর বয়সী গোলরক্ষক।

খেলার ধারার বিপরীতে ২৮তম মিনিটে রাবিওর নৈপুণ্যে এগিয়ে যায় ইউভেন্তুস। ফেদেরিকো চিয়েসার পাস ধরে ডান দিক থেকে বাঁয়ে ছুটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শটে গোলটি করেন ফরাসি মিডফিল্ডার।

পিছিয়ে পড়ে আরও চাপ বাড়ায় স্বাগতিকরা। ৪০তম মিনিটে পেদ্রো ওবিয়াংয়ের শট দারুণ নৈপুণ্যে রুখে জাল অক্ষত রাখেন মৌসুম শেষে ইউভেন্তুস ছাড়ার ঘোষণা দেওয়া বুফ্ফন।

পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রোনালদো। রাবিওর পাসে প্রথম ছোঁয়ায় বল সামনে বাড়ানোর ফাঁকে ফাঁকি দেন এক ডিফেন্ডারকে। এরপর বাঁ পায়ের প্লেসিং শটে খুঁজে নেন ঠিকানা। গড়েন ইউভেন্তুসের হয়ে দ্রুততম একশ গোলের রেকর্ড।

তুরিনের দলটির জার্সিতে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে দ্রুততম ১০০ গোলের আগের রেকর্ডটি ছিল ওমর সিভোরি ও রবের্তো বাজ্জিওর, চার মৌসুমে করেছিলেন তারা।

এবারের সেরি আয় রোনালদোর গোল হলো ২৮টি। ২১ গোল নিয়ে তালিকার দুইয়ে রোমেলু লুকাকু।

৫৯তম মিনিটে ব্যবধান কমান রাসপারোদি। লোকাতেল্লির সঙ্গে একবার বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সে ঢুকে নিচু শটে গোলটি করেন এই ইতালিয়ান ফরোয়ার্ড।

সাত মিনিট পর আবারও ব্যবধান বাড়ায় তিন দিন আগে এসি মিলানের বিপক্ষে ৩-০ গোলে উড়ে যাওয়া ইউভেন্তুস। পাল্টা আক্রমণে দেইয়ান কুলুসেভস্কির পাস ধরে ডি-বক্সে ঢুকে চিপ শটে আগুয়ান গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে জালে বল পাঠান দিবালা।

ইউভেন্তুসের জার্সিতে দিবালারও এটি শততম গোল। এটিও একটি রেকর্ড; ইউরোপের বাইরের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ক্লাবটির হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে গোলের সেঞ্চুরি করলেন তিনি।

৭৪তম মিনিটে ম্যাচ শেষ করে দিতে পারতেন দিবালা। তবে তার কোনাকুনি শট ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক। তিন মিনিট পর একজনকে কাটিয়ে রোনালদোর কোনাকুনি শট পোস্টে বাধা পেলে ব্যবধান আর বাড়েনি।

আসরে ইউভেন্তুসের এটি ২১তম জয়। সঙ্গে ৯ ড্রয়ে ৩৬ ম্যাচে ৭২ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে আছে তারা।

আগেই শিরোপা নিশ্চিত করা ইন্টার মিলান জয়ের ধারা ধরে রেখেছে। রোমাকে ৩-১ গোলে হারানো চ্যাম্পিয়নদের পয়েন্ট ৮৮।

বেনোভেন্তোকে ২-০ গোলে হারিয়ে ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আতালান্তা। আন্দ্রে রেবিচের হ্যাটট্রিকে তোরিনোকে বিধ্বস্ত করা এসি মিলানের পয়েন্টও ৭৫।

আগের দিন উদিনেজেকে ৫-১ গোলে হারানো নাপোলি ৭৩ পয়েন্ট নিয়ে আছে চার নম্বরে।

ইউভেন্তুসের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে লাৎসিও; ৩৫ ম্যাচে ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে ছয় নম্বরে আছে তারা।      


ট্যাগ:  রোনালদো  ইউভেন্তুস  সেরি আ