১ ম্যাচেই রোনালদোর ৩ রেকর্ড

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-15 23:52:12 BdST

bdnews24

মাঠে নেমেই গড়ে ফেললেন দুটি রেকর্ড। ম্যাচের শেষ দিকে গড়লেন নতুন আরেক ইতিহাস। ইউরোপের খেলোয়াড়দের মধ্যে মেজর টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার কীর্তি গড়ার দিনে ইউরোয় সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড নিজের করে নিলেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

হাঙ্গেরির পুসকাস অ্যারেনায় প্রতিযোগিতার ‘এফ’ গ্রুপে মঙ্গলবার স্বাগতিকদের বিপক্ষে ম্যাচে রেকর্ডগুলো গড়েন ৩৬ বছর বয়সী এই ফুটবলার।

বিশ্বকাপ ও ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ মিলে মেজর টুর্নামেন্টে রোনালদোর এটি ৩৯তম ম্যাচ। ছাড়িয়ে গেলেন জার্মানির সাবেক ফরোয়ার্ড বাস্টিয়ান শোয়াইনস্টাইগারকে।

একই সঙ্গে প্রথম ফুটবলার হিসেবে ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপে পাঁচ আসরে খেলার কীর্তি গড়লেন রোনালদো।

এরপর হয় গোলের রেকর্ডটি। হাঙ্গেরির জমাট রক্ষণে একের পর এক আক্রমণ ভেস্তে যাওয়ায় পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়েছিল পর্তুগাল। শেষ দিকে পাল্টে যায় চিত্র। ৮৪তম মিনিটে সোভাগ্যের ছোঁয়ায় এগিয়ে যায় তারা।

এর তিন মিনিট পরেই সফল স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রোনালদো। ১০ গোল নিয়ে পা রাখেন গোলদাতাদের তালিকার চূড়ায়। ছাড়িয়ে গেলেন ফ্রান্স কিংবদন্তি মিশেল প্লাতিনিকে।

যোগ করা সময়ে আরেকটি গোল করেন রোনালদো।

পাঁচ আসর মিলিয়ে ২২ ম্যাচে রেকর্ডটি নিজের করে নিলেন রোনালদো। ২০০৪ সালে নিজের প্রথম আসরে ২টি, ২০০৮-এ ১টি, ২০১২ ও ২০১৬ আসরে করেন ৩টি করে।

ফ্রান্স কিংবদন্তি মিশেল প্লাতিনি ৯ গোল করেছিলেন এক আসরেই, ১৯৮৪ সালে ৫ ম্যাচে।

বলার অপেক্ষা রাখে না, ইউরোর পাঁচ ভিন্ন আসরে গোল করা একমাত্র ফুটবলারও তিনি। একাধিক আসরে অন্তত ৩ গোল করার একমাত্র কীর্তিও রোনালদোর।

তার গোল করার ধরনেও আছে রেকর্ড। আগের ৯টির মতো এবারও ডি-বক্সের মধ্য থেকে জালে বল পাঠিয়েছেন, এর মধ্যে ৫টি হেডে। দুটিই রেকর্ড।

গ্রুপ পর্যায়ে করেছেন তিনি সর্বাধিক ৮টি গোল।

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ইতিহাসে দুটি ফাইনাল খেলা ৪৪ খেলোয়াড়ের একজন রোনালদো। তিনটি ফাইনাল খেলতে পারেননি কেউ। এবার সুযোগ তার সামনে।

বর্নাঢ্য ক্যারিয়ারে অসংখ্য রেকর্ড ভেঙেছেন ও গড়েছেন। এর মধ্যে আরেকটি দুর্দান্ত রেকর্ড গড়ার পথে এগিয়ে চলেছেন রোনালদো; জাতীয় দলের হয়ে ১৭৫ ম্যাচে তার গোল হলো ১০৬টি। আর তিনটি হলে ইরানের আলি দাইয়ের গড়া ১০৯ গোলের রেকর্ড স্পর্শ করবেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়।