স্পেনকে রুখে দিলেন লেভানদোভস্কি

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-20 02:59:11 BdST

অনেকটা সময় এগিয়ে থেকে দিক হারাল স্পেন। বিরতির পর দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়াল পোল্যান্ড। সহজ সুযোগ নষ্টের পর চমৎকার গোল করলেন রবের্ত লেভানদোভস্কি। সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের রুখে দিয়ে মূল্যবান একটি পয়েন্ট তুলে নিল সফরকারীরা।

সেভিয়ার লা কার্তুহায় শনিবার রাতে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। আলভারো মোরাতার গোলে এগিয়ে গিয়েছিল স্বাগতিকরা। দ্বিতীয়ার্ধে তাদের হয়ে পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন জেরার্দ মরেনো।

টানা দুই ম্যাচে পয়েন্ট হারিয়ে গ্রুপের শীর্ষ দুইয়ে থেকে পরের রাউন্ডে যাওয়ার পথ কঠিন হয়ে গেল লুইস এনরিকের দলের। প্রথম ম্যাচে সুইডেনের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছিল তিনবারের ইউরো চ্যাম্পিয়নরা।

বল দখল ও আক্রমণে পুরো ম্যাচে আধিপত্য করে স্পেন। গোলের উদ্দেশে তাদের ১২ শটের ৫টি ছিল লক্ষ্যে। পোল্যান্ডের ৫ শটের ২টি লক্ষ্যে ছিল।

সপ্তম মিনিটে অনেকটা দূর থেকে আচমকা শট নেন পোলিশ মিডফিল্ডার মাতেয়াস ক্লিচ। ক্রসবারের সামান্য ওপর দিয়ে উড়ে যায় বল। তিন মিনিট পর প্রথম শট নেয় স্পেন। দানি ওলমোর প্রচেষ্টা সহজেই ঠেকান গোলরক্ষক ভয়চেখ স্ট্যাসনি।

২৫তম মিনিটে এগিয়ে যায় স্পেন। মরেনোর পাসে ছয় গজ বক্সের মুখে প্রথম ছোঁয়ায় ডান পায়ের শটে বল জালে পাঠান মোরাতা। শুরুতে অবশ্য অফসাইডের পতাকা তুলেছিলেন লাইন্সম্যান। ভিএআরে পাল্টায় সিদ্ধান্ত।

৩৪তম মিনিটে মরেনোর নিচু ফ্রি কিক পোস্টের সামান্য বাইরে দিয়ে যায়। পরের মিনিটে লেভানদোভস্কির ক্রসে কাছ থেকে ভলি লক্ষ্যে রাখতে পারেননি ফরোয়ার্ড কারল।

বিরতির আগে ডি-বক্সের বাইরে থেকে কারলের বাঁ পায়ের জোরালো শট পোস্টে লাগে। ফিরতি বল কাছ থেকে ওয়ান-অন-ওয়ানে গোলরক্ষক বরাবর মেরে হতাশ করেন লেভানদোভস্কি।

৫৪তম মিনিটে বায়ার্নের মিউনিখের এই তারকার দারুণ গোলেই সমতায় ফেরে সফরকারীরা। ডান দিক থেকে সতীর্থের ক্রসে লাফিয়ে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন গত বছরের ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়।

দেশটির প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোর ভিন্ন তিন আসরে (২০১২, ২০১৬, ২০২০) জালের দেখা পেলেন ২০২০-২১ মৌসুমে বুন্ডেসলিগার এক আসরে সর্বোচ্চ ৪১ গোলের রেকর্ড গড়া লেভানদোভস্কি।

পরক্ষণেই লিড পুনরুদ্ধারের সুযোগ পান মরেনো। কিন্তু স্পট কিকে বল পোস্টে মারেন তিনি। ফিরতি বল লক্ষ্যে রাখতে পারেননি মোরাতা। মরেনো ফাউলের শিকার হলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি।

৭৩তম মিনিটে ভালো একটি সুযোগ পান ফেররান তরেস। মার্কোস ইয়োরেন্তের ক্রসে বাইরে হেড করেন ম্যানচেস্টার সিটির তরুণ এই ফরোয়ার্ড।

শেষ দিকে সুযোগ এসেছিল মোরাতার সামনে। কাছ থেকে তার প্রচেষ্টা সামনে ঝাঁপিয়ে আটকে দেন গোলরক্ষক স্ট্যাসনি।

দুই ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে আছে সুইডেন। ৩ পয়েন্ট নিয়ে স্লোভাকিয়া দুইয়ে, ২ পয়েন্ট নিয়ে স্পেন আছে তিনে। পোল্যান্ডের পয়েন্ট ১। সবারই সুযোগ আছে শেষ ষোলোয় যাওয়ার।

শেষ রাউন্ডে আগামী বুধবার স্লোভাকিয়ার মুখোমুখি হবে স্পেন। একই সময়ে সুইডেনের বিপক্ষে খেলবে পোল্যান্ড।