পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

‘এখানেই শেষ নয়’, ফাইনালে উঠে ইতালি কোচের হুঙ্কার

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-07 11:04:01 BdST

bdnews24

কঠিন ম্যাচ উতরে যাওয়ার স্বস্তি আছে। সংশয়বাদীদের ভুল প্রমাণ করার তৃপ্তি আছে। স্নায়ুক্ষয়ী লড়াই জিতে শিরোপা মঞ্চে পা রাখতে পেরে তাই উচ্ছ্বসিত রবের্তো মানচিনি। সেমি-ফাইনাল জয়ের পর ইতালি কোচের আত্মবিশ্বাসী উচ্চারণ, এবার তারা তাকিয়ে চূড়ান্ত লক্ষ্য পূরণে।

ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম সেমি-ফাইনালে মঙ্গলবার টাইব্রেকারে স্পেনকে ৪-২ গোলে হারায় ইতালি।

ফাইনালে উঠলেও অবশ্য এ দিন বড় পরীক্ষায় পড়তে হয়েছিল ইতালিকে। অপ্রতিরোধ্য গতিতে ছুটতে থাকা দলটিকে এই ম্যাচে অনেকটা সময় কোণঠাসা করে রাখে তারুণ্য নির্ভর স্পেন। ম্যাচের ৬৫ ভাগ বল দখলে ছিল স্প্যানিশদের, গোলে শট নেওয়ার ক্ষেত্রেও তারা ছিল অনেক এগিয়ে। কিন্তু ম্যাচে আগে গোল করে ইতালি। স্পেন পরে গোল ফিরিয়ে দিলেও পরে শেষ রক্ষা হয়নি। সেই চিরায়ত হার না মানা মানসিকতা দেখিয়ে ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়ে ইতালি।

ম্যাচ শেষে মানচিনি বললেন, কঠিন চ্যালেঞ্জের প্রস্তুতি নিয়েই তারা মাঠে নেমেছিলেন।

“কিছু ম্যাচ আসেই, যেখানে ভুগতে হয়। সবসময়ই মসৃণ গতিতে এগিয়ে যাওয়া যায় না। আমরা জানতাম, ম্যাচটি কঠিন হবে। কারণ বল ধরে রাখার ক্ষেত্রে স্পেন সময়ের সেরা। তারা আমাদের ভুগিয়েছে। তবে আমরা লড়াই করে গেছি, যখন সুযোগ তৈরি করা ও গোল করার প্রয়োজন ছিল, সেটিও আমরা করেছি।”

“বল পাচ্ছিলাম না বলে কিছু সমস্যা হয়েছে। তবে আমাদের লক্ষ্য ছিল ফাইনাল খেলা, তাই শেষ পর্যন্ত লড়েছি আমরা। পেনাল্টি তো লটারি। তবে স্পেনকেও টুপিখোলা অভিনন্দন জানাই, ওরা দুর্দান্ত দল।”

কঠিন লড়াইয়ে এই জয় এসেছে বলেই কৃতিত্ব বেশি প্রাপ্য বলে মনে করেন ইতালি কোচ।

“আমরা জানতাম, ম্যাচটি কঠিন হবে। এজন্যই সব ফুটবলার ও গত তিন বছরে আমাদের সঙ্গে যারা কাজ করেছে, সবার কৃতিত্ব প্রাপ্য। কারণ কাজটি সহজ ছিল না।”

ম্যাচ শেষে মাঠে লম্বা সময় উদযাপন করতে দেখা যায় ইতালিকে। কোচ-ফুটবলারদের প্রতিক্রিয়াতেও ফুটে উঠছে উচ্ছ্বাস। তবে এখনই যে তারা পুরো তৃপ্ত নন, সেটিও পরিষ্কার করে দিয়েছেন মানচিনি।

“প্রায় কেউই বিশ্বাস করেনি আমরা এটা করতে পারব। তার পরও আমরা ফাইনালে। দুর্দান্ত এই রাতে ইতালিয়ানদের বিনোদনের উৎস হতে পেরে আমরা উচ্ছ্বসিত। তবে এখানেই শেষ নয়, আরেকটি ম্যাচ বাকি আছে আমাদের।”

দ্বিতীয় সেমি-ফাইনালে ইংল্যান্ড ও ডেনমার্কের লড়াইয়ে জয়ী দলের সঙ্গে আগামী রোববার ট্রফির লড়াইয়ে নামবে ইতালি।