পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

‘ডেনিশ ডায়নামাইটের’ পর ইংল্যান্ডের ‘অবিশ্বাস্য মুহূর্ত’

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-08 10:58:58 BdST

bdnews24
অধিনায়ক ও সেমি-ফাইনালের গোল স্কোরার হ্যারি কেইনের সঙ্গে কোচ গ্যারেথ সাউথগেটের উদযাপন।

পাঁচ দশকের বেশি যন্ত্রণাময় অপেক্ষা, প্রজন্মের পর প্রজন্মের বিষাদ, হতাশার অসংখ্য দিন-রাত্রি পেরিয়ে অবশেষে সেই বহুকাঙ্ক্ষিত মুহূর্ত। ৫৫ বছর পর বড় কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে ইংল্যান্ড। ঘরের মাঠে সেমি-ফাইনাল জিতে ঘরের মাঠেই ট্রফি জয়ের মঞ্চে পা রাখার পর আনন্দের জোয়ারে ভাসছেন ইংল্যান্ডের কোচ, ফুটবলার, দলের সবাই।

ওয়েম্বলিতে বুধবার ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে আধিপত্য ছিল ইংল্যান্ডেরই। তবে ম্যাচে এগিয়ে যায় আগে ডেনমার্ক। ৩০ মিনিটে মিকেল ডামসগার্ডের বুলেট গতির ফ্রি কিক আশ্রয় নেয় জালে। ধারাভাষ্যকার পিটার ড্রুরির কণ্ঠে যে গোলের বর্ণনা পায় ভিন্ন মাত্রা, ‘দ্যাটস আ ডেনিশ ডায়নামাইট।’

বেশিক্ষণ অবশ্য পিছিয়ে থাকতে হয়নি ইংল্যান্ডকে। প্রথমার্ধেই ডেনমার্কের আত্মঘাতী গোলে ম্যাচে ফেরে সমতা। নির্ধারিত ৯০ মিনিট ড্র থাকার পর অতিরিক্ত সময়ে হ্যারি কেইনের পেনাল্টি গোলে তারা পৌঁছে যায় স্বপ্নের ঠিকানায়।

সেই ১৯৬৬ বিশ্বকাপের পর এই প্রথম বড় আসরের ফাইনালের দেখা পেল ইংলিশরা।

ফাইনাল খেলার যে দীর্ঘ প্রতীক্ষা, সেই বেদনার ইতিহাসের একটি অংশ জুড়ে আছেন ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেটও। ১৯৯৬ ইউরোতে এই ওয়েম্বলিতেই সেমি-ফাইনালে জার্মানির কাছে ইংল্যান্ড হেরে যায় টাইব্রেকারে শেষ শটটি সাউথগেট মিস করায়।

শেষ নয় সেখানেই। গত বিশ্বকাপে সাউথগেটের কোচিংয়েই সেমি-ফাইনালে ওঠে ইংল্যান্ড। কিন্তু সেখানে হেরে যায় ক্রোয়েশিয়ার কাছে।

হৃদয়ভাঙার এত উপাখ্যান শেষে এই ফাইনাল ধরা দিয়েছে বলেই যেন তা আরও বিশেষ কিছু হয়ে উঠেছে সাউথগেটের কাছে। ম্যাচ শেষে তার কণ্ঠে ধরা পড়ল সেই উচ্ছ্বাস।

“ সেমি-ফাইনাল উতারাতে যখন এত লম্বা সময় অপেক্ষা করতে হয়… এই ফুটবলারদের আন্তর্জাতিক ম্যাচের যে সীমিত অভিজ্ঞতা, সেই তুলনায় ওরা অবিশ্বাস্য কাজ করেছে। মস্কোতে আমাদের ভুগতে হয়েছিল। আজকে এমন একটি রাতে আমরা উতরে যেতে পেরেছি।”

“এমন মুহূর্তের অংশ হতে পারা অবিশ্বাস্য। সমর্থকরা রাতজুড়ে ছিলেন অবিশ্বাস্য। মাঠে ঝড় বয়ে গেছে এবং আমিও এর অংশ ছিলাম। আমরা ফাইনালে উঠেছি, এমন উদযাপন আর উল্লাস আমাদের প্রাপ্য।”

ম্যাচে ফেবারিট ছিল ইংল্যান্ড। তবে জয়টি আসেনি সহজে। সাউথগেট বললেন, ডেনমার্কের কাছ থেকে এমন লড়াইয়ের জন্য তৈরি ছিল তার দল।

“আমার বিশ্বাস ছিল আমরা পারব। তবে এটাও জানতাম, অনেক লড়াই করতে হবে। ডেনমার্ক খুবই ‘আন্ডাররেটেড’ দল এবং মাঠে ঠিকই তারা আমাদের অনেক ভুগিয়েছে। আমরা জানতাম কাজটি সহজ হবে না। ফুটবলারদের বলেছিলাম, আমাদের দৃঢ়তা দেখাতে হবে। ধাক্কা পেলে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। সেটা আমরা পেরেছি।”

“আমাদের সমর্থক, আমাদের দেশকে দারুণ এক রাত উপহার দিয়েছি আমরা। এই দুর্দান্ত পথচলা টিকে থাকছে আরও চার দিন। আগেই বলেছিলাম যে আমরা স্মৃতিময় সময় উপহার দিতে চাই।”