পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

মিনেইরো-বোকা ম্যাচের পর লঙ্কাকাণ্ড

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-21 14:01:22 BdST

প্রথম লেগে ভিএআরে বাতিল হয়েছিল গোল। দ্বিতীয় লেগেও সেই একই পরিণতি। কোপা লিবের্তাদোরেস থেকে ব্রাজিলের দল আতলেতিকো মিনেইরোর কাছে হেরে ছিটকে যাওয়ার পর তাই ক্ষোভ আটকে রাখতে পারেনি আর্জেন্টিনার ক্লাব বোকা জুনিয়র্সের খেলোয়াড়রা। টানেলে, ড্রেসিংরুমে ঝাঁপিয়ে পড়ল তারা। লঙ্কাকাণ্ড থামাতে শেষ পর্যন্ত টিয়ার গ্যাসও মারতে হয়েছে পুলিশকে!

কোপা লিবের্তাদোরেসের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে মঙ্গলবার মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। গোলশূন্য ড্রয়ের পর ম্যাচের ভাগ্য গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে ৩-১ গোলের জয় পায় মিনেইরো।

বেলো হরিজন্তের ওই ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে বোকার একটি গোল ভিএআর দেখে অফসাইডের কারণে বাতিল করে দেন রেফারি। মাঠের পাশে রাখা টিভিতে ওই গোল রেফারি চেক করতে যাওয়ার সময়ই একদফা হট্টগোল বাধে। ম্যাচ শেষে টানেলে গিয়ে আরেক দফা এবং সবশেষ মিনেইরোর ড্রেসিং রুমের সামনে তা চূড়ান্ত রূপ নেয়।

ব্রাজিলের ওয়েবসাইট গ্লোবোস্পোর্তে জানিয়েছে, বোকার খেলোয়াড়রা স্বাগতিক মিনেইরোর ড্রেসিং রুমে প্রবেশের চেষ্টা করে, যেখানে আশ্রয় নিয়েছিলেন ম্যাচ রেফারিরা।

আর্জেন্টিনার ওয়েবাসাইট টিওয়াইসি তাদের প্রতিবেদনে জানায়, বোকার খেলোয়াড়রা মিনেইরোর ড্রেসিং রুমে জোর করে প্রবেশের চেষ্টাকালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ব্যারিকেড ভেঙে ফেলে এবং অনেক কিছু ছুঁড়তে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করলে আহত হয় বোকার কয়েকজন খেলোয়াড়।

গত সপ্তাহে বুয়েন্স আইরেসের প্রথম লেগে দুই দলের ম্যাচটি গোলশূন্য সমতায় শেষ হয়েছিল। ওই ম্যাচেও ভিএআরে দীর্ঘক্ষণ পর্যবেক্ষণ করে বোকার একটি গোল অফসাইডের কারণে বাতিল করে দিয়েছিলেন রেফারি।

কোপা লিবের্তাদোরেস থেকে ছিটকে যাওয়ার কারণ রেফারিং কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে বোকার মিডফিল্ডার দিয়েগো গনসালেস মুণ্ডুপাত করেছেন রেফারির।

“কোনো সন্দেহ নেই (রেফারিই আমাদের হারের কারণ), সবাই সেটা দেখেছে। আমরা ভালো একটি গোল করেছিলাম, এবং প্রথম লেগেও জয়ের যোগ্য ছিলাম আমরা।”

“এটা কষ্টের, আমাদের খারাপ লাগছে। রেফারিংয়ের দিকটা কনমেবলের (সাউথ আমেরিকান ফুটবল কনফেডারেশন)  দেখা প্রয়োজন।”

দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে রেফারি ভিএআরে বোকার গোলটি যাচাই করতে যাওয়ার সময় রেফারির দিকে ধেয়ে যাওয়া বোকার খেলোয়াড়দের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন ব্রাজিলিয়ান অফিসিয়ালরা (মিনেইরোর অফিসিয়ালরা) । দুই পক্ষের সহকারী কোচকে লাল কার্ড দেখান রেফারি।

এই ঘটনায় শাস্তির মুখে পড়তে পারে দুই ক্লাবই।