পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

এই বাংলাদেশ বিস্ময় উপহার দিতে পারে: কিংসলে

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-23 20:43:59 BdST

bdnews24

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের গত চার আসরে গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে পড়ার হতাশা সঙ্গী বাংলাদেশ দলের। অতীতের ওই চোখ রাঙানির কারণে বড় স্বপ্ন দেখাও কঠিন। কিন্তু আশাবাদী এলিটা কিংসলে। প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের জার্সিতে অনুশীলন করার রোমাঞ্চ নিয়ে এই ফরোয়ার্ড জানালেন, ভিন্ন একটা দল হয়ে উঠতে পারে বাংলাদেশ। সাফে উপহার দিতে পারে বিস্ময়ও।

নাগরিকত্ব বদলে নাইজেরিয়ান থেকে বাংলাদেশি হয়ে যাওয়া কিংসলেকে সাফের জন্য দেওয়া ২৭ জনের প্রাথমিক দলে রেখেছেন অস্কার ব্রুসন। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দলের সঙ্গে বৃহস্পতিবার প্রথম অনুশীলন সেরেছেন ৩১ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড।

জাতীয় দলের অনুশীলনে ১০ ক্লাব সতীর্থকে পেয়েছেন কিংসলে। কোচেরও বদল হয়নি। জেমি ডেকে ‘ছুটি’ দিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে কিংস কোচ অস্কার ব্রুসনকে দায়িত্ব দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। তবে অনেক কিছু চেনা-জানা হলেও জাতীয় দলের হয়ে প্রথম অনুশীলনের রোমাঞ্চ ছুঁয়ে যাচ্ছে কিংসলেকে।

“ভিন্নরকম অনুভূতি। অবশেষে স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। ক্লাবের হয়ে খেলার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে আগে। এই প্রথম জাতীয় দলের হয়ে অনুশীলন করতে নামলাম, এটা অদ্ভূত এক অনুভূতি। বলব না যে আমি খুব আবেগাক্রান্ত। জাতীয় দলের জার্সি পরলে আবেগাক্রান্ত হওয়াটা স্বাভাবিক, কিন্তু এখন আমাদেরকে খেলার দিকে মনোযোগী হতে হচ্ছে।”

“সম্মিলিতভাবে কাজ চলছে ভিন্ন একটা জাতীয় দল পাওয়ার জন্য। অতীতে যেটা হয়েছে, সেটাও খারাপ হয়নি। এটা ভিন্ন একটা দল, আমরা চাই কিছুটা পরিবর্তন আনতে। এমন একটা জাতীয় দল চাই, যারা দেশকে আনন্দ এনে দিবে।”

আসছে সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে পাঁচ দলের মধ্যে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ। কিন্তু কিংসলের মনে হচ্ছে মালদ্বীপে বিস্ময় উপহার দিতে পারে বাংলাদেশ।

“অনুশীলনে আমার মনে হচ্ছে, আমি এখনও বসুন্ধরা কিংসে আছি। সবকিছু একই মনে হচ্ছে। অস্কারের সব কিছু সম্পর্কে আগে থেকেই জানি। যদি তার এই সিস্টেমের মধ্য দিয়ে যেতে পারি, সিস্টেমটা কাজ করে, তাহলে আমরা ভিন্ন একটা দল হয়ে উঠব। এই দলটি হয়ত সাফে মানুষকে বিস্মিত করতেও পারে। এটা আমার ব্যক্তিগত মত।”

বাংলাদেশি হয়ে গেলেও ফিফা ও এএফসির ছাড়পত্র না থাকায় কিংসের হয়ে এএফসি কাপে খেলতে পারেননি কিংসলে। সাফে খেলতে পারবেন কিনা, তা নিশ্চিত নয় এখনও। সব অনিশ্চয়তাকে সঙ্গী করেই নিজেকে সাফের জন্য প্রস্তুত করছেন তিনি।

“(ছাড়পত্র পাওয়া) এটা আমার ব্যাপার নয়। এটা বাফুফের ব্যাপার। আমি খেলার জন্য বিবেচিত হব কিনা, সেটা বাফুফে দেখবে। যদি আমি খেলার অনুমতি পাই, তাহলে প্রমাণের চেষ্টা করব কেন আমাকে এই দলে নেওয়া হয়েছে। আমি শুধু এটাই বলতে পারি।”

আগামী ১ অক্টোবর থেকে মালদ্বীপে শুরু হবে সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের ত্রয়োদশ আসর। ২৮ সেপ্টেম্বর মালদ্বীপের উদ্দেশে রওনা দেবে দল। সাফে খেলতে হলে এর আগেই ফিফা-এএফসির ছাড়পত্র পেতে হবে কিংসলেকে।