পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

‘আগে শ্রীলঙ্কা পরে ভারত ম্যাচের ভাবনা’

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-27 19:14:12 BdST

bdnews24

দায়িত্ব নেওয়ার পর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রস্তুতির জন্য অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুসন সময় পেয়েছেন মাত্র ছয় দিন। এত অল্প সময়ে দলকে নতুন কৌশলে গুছিয়ে নেওয়া কঠিন, মানছেন এই স্প্যানিশ কোচ । তবে দল যে একেবারেই কৌশল রপ্ত করতে পারেনি, তা মনে করেন না তিনি। দলের সবার মধ্যে নিজেদের মেলে ধরার আত্মবিশ্বাসও দেখতে পাচ্ছেন ব্রুসন।

তবে তিনি এগুতে চান সতর্ক পথে। তাই আপাতত ভাবছেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ নিয়েই।

মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে আগামী ১ অক্টোবর মাঠে গড়াবে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ত্রয়োদশ আসর। মঙ্গলবার মালদ্বীপের উদ্দেশে রওনা দেবে দল। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) সোমবার সংবাদ সম্মেলনে সাফের প্রস্তুতি, লক্ষ্য নিয়ে কথা বলেন ব্রুসন।

জেমি ডেকে ‘ছুটি’ দিয়ে সাফের দায়িত্ব ব্রুসনের হাতে তুলে দিয়েছে বাফুফে। এতদিন বসুন্ধরা কিংস ক্লাবের দায়িত্বে থাকা এই কোচ ছয় দিনের প্রস্তুতিতে চেষ্টা করেছেন ৩-৪-৩ ছক থেকে বেরিয়ে ৪-৩-৩ ফরমেশনে দলকে গুছিয়ে নেওয়ার। এই কৌশল মালেতে কাজে দেবে বলেও বিশ্বাস তার।

“সাফের মতো বড় প্রতিযোগিতার জন্য আমরা ছয় দিন প্রস্তুতির সময় পেয়েছি। ইউরোপীয় মানের প্রস্তুতির দিক থেকে এই সময় যথেষ্ট নয়, কিন্তু আমাদের জন্য এই সময় যথেষ্টর চেয়েও বেশি কিছু। কেননা, আমরা খুব গভীর এবং বিস্তারিতভাবে আমাদের খেলার কৌশল, স্টাইল নিয়ে কাজ করেছি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে, এই খেলোয়াড়, কোচ সবার মধ্যে দারুণ বোঝাপড়া ও বন্ধন তৈরি হয়েছে। সম্মিলিতভাবে আমরা চেষ্টা করব পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়নের।”

২০০৩ সালে প্রথম ও সবশেষ সাফের শিরোপা জয়ের দুই বছর পরের আসরে ফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ। তবে ২০১১ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত চার আসরে কখনও পেরুতে পারেনি গ্রুপ পর্বের বৈতরণী। দেড় যুগ ধরে চলা শিরোপা খরা এবার দূর করার বড় স্বপ্ন দেখালেন না ব্রুসন। তবে পরিকল্পনা কাজে লাগার ব্যাপারে আশাবাদী কোচ। 

“ফল বা ট্রফি এনে দেওয়ার প্রতিজ্ঞা করব না। এটা বলতে পারি, ছেলেরা ভিন্ন কৌশলে এরই মধ্যে ভালো পারফর্ম করতে শুরু করেছে, নতুন কৌশল প্রয়োগ করতে পারছে। আমরা চাই বাংলাদেশের ফুটবলকে আরও উঁচুতে তুলতে। এজন্য আমাদের দেখাতে হবে দক্ষিণ এশিয়ার সব দলকে হারাতে পারি আমরা।”

“ফলাফল পাওয়া একটা বিষয়, কিন্তু আমরা চাই আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখতে। কেননা, নতুন কৌশল নিয়ে আমরা নিবিড়ভাবে কাজ করছি এবং সবার আত্মবিশ্বাস উঁচুতে। এই দলটা দিনকে দিন পরিকল্পনাগুলো আরও পরিষ্কারভাবে বুঝতে পারছে এবং এই পরিকল্পনা কাজে দিতে পারে, এ ব্যাপারে তারা সবাই নিশ্চিত।”

উদ্বোধনী দিনে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে এবার যাত্রা শুরু করবে বাংলাদেশ। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ ৪ অক্টোবর। প্রতিযোগিতার রেকর্ড সাতবারের চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে তাই আগে ভাবতে চাইছেন না ব্রুসন। কাছাকাছি মানের দল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিতে ভারত ম্যাচের আত্মবিশ্বাস সঞ্চয়ের লক্ষ্য তার।

“এ মুহূর্তে আমাদের সব ভাবনা, পর্যালোচনা শ্রীলঙ্কা ম্যাচ নিয়ে। যদি তাদের হারাতে পারি, তাহলে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটি ‘হাফ-ফাইনাল’ খেলতে যাব। যদি শ্রীলঙ্কাকে হারাতে না পারি, তাহলে আমাদের পয়েন্ট পাওয়া কঠিন হয়ে যাবে। কেননা, পরের প্রতিপক্ষগুলো আরও কঠিন।”

“ফাইনালের পথটা নিয়ে এখন আমরা ভাবছি না। এটা লম্বা পথ। কেননা, চারটা ম্যাচ..অনেক কিছু। তাই আমাদের মনোযোগ নির্দিষ্ট দিনকে ঘিরে এবং শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পয়েন্ট পাওয়ার দিকে। প্রথম ম্যাচ জিততে পারলে আমাদের সামনে অনেকগুলো পথ খুলে যাবে।”