পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

শাস্তি কমল আরামবাগ ও দলটির খেলোয়াড়দের

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-27 20:09:39 BdST

bdnews24

আপিলে শাস্তি কমেছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও ক্লাবটির খেলোয়াড়দের। তবে বহালই থেকেছে কর্মকর্তাদের শাস্তি।

প্রিমিয়ার লিগের গত আসরে লাইভ বেটিং, ম্যাচ ফিক্সিং, ম্যাচ ম্যানিপুলেশন ও অলনাইন বেটিংয়ের ‘সুস্পষ্ট প্রমাণ’ পাওয়ায় গত ২৯ অগাস্ট আরামবাগ ও দলটির খেলোয়াড়দের বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেয় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। পরে অনেকে আপিল কমিটির কাছে শাস্তি কমানোর আবেদন করে।

প্রিমিয়ার লিগ থেকে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আরামবাগকে প্রথম বিভাগ লিগে নামিয়ে দেওয়া হয়। করা হয় ৫ লাখ টাকা জরিমানা। একই সঙ্গে যত পয়েন্টই পাক বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে উত্তরণের পথ বন্ধ করে দেওয়া হয়। জরিমানা বহাল রেখেছে আপিল কমিটি তবে তারা চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে উঠে আসার পথ খুলে দিয়েছে।

আরামবাগের গোলরক্ষক আপেল মাহমুদ (৫ বছরের জন্য) আবুল কাশেম, আল আমিন, মোহাম্মদ রকি, জাহিদ হোসেন, রাহাদ মিয়া, মোস্তাফিজুর রহমান সৈকত, শামীম রেজাকে তিন বছরের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল ডিসিপ্লিনারি কমিটি। এছাড়াও দলটির খেলোয়াড় ওমর ফারুক, রাকিবুল ইসলাম, মেহেদী হাসান ফাহাদ ও মিরাজ মোল্লাকে ২ বছরের জন্য ফুটবল সংশ্লিষ্ট সকল কার্যকলাপ থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।

খেলোয়াড়দের ক্যারিয়ারের কথা বিবেচনা করে তাদের শাস্তি কমিয়ে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আপিল কমিটি। অর্থাৎ আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ফুটবল সংশ্লিষ্ট সকল ধরনের কার্যকলাপ থেকে দূরে থাকতে হবে তাদের।

আপেল, মিলন, রকি, জাহিদ, সৈকত, শামীম ও ওমর ফারুক-এই সাত খেলোয়াড় এখনও আপিল ফি জমা দেননি। আগামী ৯ অক্টোবরের মধ্যে ফি জমা না দিলে তাদের ক্ষেত্রে ডিসিপ্লিনারি কমিটির সিদ্ধান্তই কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে বাফুফে।