পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ভিনিসিউসের জোড়া গোলে রিয়ালের দারুণ জয়

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-10-20 02:56:56 BdST

সময়টা কাটছিল খুবই বাজে। আন্তর্জাতিক বিরতির পর প্রথমবার মাঠে নেমে রিয়াল মাদ্রিদ জেগে উঠল প্রবল বিক্রমে। একের পর এক আক্রমণে কাঁপিয়ে দিল প্রতিপক্ষকে। দাপুটে পারফরম্যান্সে শাখতার দোনেৎস্ককে উড়িয়ে জয়ের পথে ফিরল কার্লো আনচেলত্তির দল।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রতিপক্ষের মাঠে বুধবার রাতে ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচটি ৫-০ গোলে জিতেছে রিয়াল। আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর দুইবার জালে বল পাঠান ভিনিসিউস জুনিয়র। তার পাস থেকেই ব্যবধান আরও বাড়ান আরেক ফরোয়ার্ড ব্রাজিলিয়ান রদ্রিগো। শেষ দিকে জালের দেখা পান করিম বেনজেমা।

সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে তিন ম্যাচ পর জয়ের স্বাদ পেল রিয়াল। আন্তর্জাতিক বিরতির আগে সবশেষ দুই ম্যাচে লা লিগায় এস্পানিওলের মাঠে ২-১ গোলে ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে শেরিফ তিরাসপুলের কাছে একই ব্যবধানে হেরেছিল তারা। তারও আগে লিগে সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়েই গোলশূন্য ড্র করেছিল ভিয়ারিয়ালের সঙ্গে।

শাখতারের বিপক্ষে ৫৮ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে রিয়াল গোলের জন্য শট নেয় মোট ২৩টি, যার ১০টি ছিল লক্ষ্যে। আর শাখতারের সাত শটের চারটি লক্ষ্যে ছিল।

শুরু থেকে স্বাগতিকদের চেপে ধরে রিয়াল। তবে গোলরক্ষকের বাধা এড়াতে পারছিল না তারা। চতুর্থ মিনিটে ৩০ গজ দূর থেকে টনি ক্রুসের জোরালো শট ঠেকানোর দুই মিনিট পর ভিনিসিউসের শটও ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন ত্রুবিন।

২৩তম মিনিটে বিপদে পড়তে বসেছিল রিয়াল। বাঁ দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে শাখতারের মিডফিল্ডার সলোমনের ডি-বক্সে বাড়ানো বল ছুটে গিয়ে ডাইভ দিয়ে ক্লিয়ার করেন ফেরলঁদ মঁদি।

৩৩তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে ক্রসবারের অনেক ওপর দিয়ে উড়িয়ে মারেন বেনজেমা। এর তিন মিনিট পরই সৌভাগ্যসূচক গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল। ডান দিক থেকে লুকাস ভাসকেসের ক্রস ডাইভ দিয়ে ক্লিয়ার করার চেষ্টায় নিজেদের জালেই বল পাঠান ডিফেন্ডার সের্হি ক্রাইভৎসভ। ত্রুবিন আগেই কিছুটা এগিয়ে আসায় লাফিয়েও বলের নাগাল পাননি।

বিরতির আগে বাড়তে পারত ব্যবধান। ডি-বক্সের বাইরে থেকে বেনজেমার শট ফিরিয়ে দেন ত্রুবিন। দ্বিতীয়ার্ধের ষষ্ঠ মিনিটে দারুণ এক আক্রমণ থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করে সফরকারীরা।

মাঝমাঠ থেকে বাঁ দিকে বেনজেমাকে পাস দিয়ে এগিয়ে যান লুকা মদ্রিচ। ফরাসি ফরোয়ার্ডের ফিরতি পাস পেয়ে ডি-বক্সে দারুণ থ্রু বল বাড়ান ক্রোয়াট মিডফিল্ডার। বাকিটা অনায়াসে সারেন ভিনিসিউস।

চার মিনিট পর অসাধারণ এক গোলে ব্যবধান আরও বাড়ান এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। একজনকে কাটিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন তিনি। সেখানে আরও একজনকে কাটিয়ে দুরূহ কোণ থেকে বাঁ পায়ের শটে খুঁজে নেন ঠিকানা।

এই মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে নয় ম্যাচে ভিনিসিউসের গোল হলো সাতটি।

৬৪তম মিনিটে দলের পরের গোলেও অবদান রাখেন তিনি। ডি-বক্সে তার কাটব্যাকে বল পেয়ে বাঁ পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন স্বদেশী ফরোয়ার্ড রদ্রিগো।

পাঁচ মিনিট পর ডাবল সেভে ব্যবধান ধরে রাখেন রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া। আর যোগ করা সময়ে বড় জয় নিশ্চিত করেন বেনজেমা। মার্কো আসেনসিওর ক্রস থেকে গোলটি করেন তিনি।

মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১১ ম্যাচে বেনজেমার গোল হলো ১১টি।

আগামী রোববার লা লিগায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার মুখোমুখি হবে রিয়াল। এর আগে শাখতারের বিপক্ষে এই জয় নিশ্চিতভাবে তাদের আত্মবিশ্বাসে বাড়তি জ্বালানী যোগাবে।

তিন ম্যাচে দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে দুই নম্বরে আছে রিয়াল। তাদের সমান পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে ৩-১ গোলে হারা শেরিফ।

মিলানের দলটির পয়েন্ট ৪। ১ পয়েন্ট নিয়ে সবার নিচে শাখতার।