পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

‘মেসি-নেইমারদের সঙ্গেই থাকতে চেয়েছি’

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-05-23 22:29:33 BdST

bdnews24

অনেক নাটকীয়তার পর কিলিয়ান এমবাপের পিএসজিতে চুক্তি নবায়নে বড় ভূমিকা রেখেছে অর্থের ঝংকার, এমনটা ভাবার লোক কম নয়। ফরাসি তারকা অবশ্য বললেন ভিন্ন কথা। এই ফরোয়ার্ড জানালেন, তার সিদ্ধান্তে বড় ভূমিকা রেখেছে মেসি-নেইমারদের মতো সেরাদের সঙ্গে আরও লম্বা সময় ধরে খেলার সুযোগ।

প্রায় এক বছর ধরে চলা দলবদলের অনেক বাঁক পেরিয়ে শেষ পর্যন্ত পিএসজিতেই থেকে গেছেন এমবাপে। গত শনিবার দলটির সঙ্গে ২০২৫ সাল পর্যন্ত চুক্তির ঘোষণা দেন তিনি।

এর মধ্য দিয়ে অবসান ঘটে গত গ্রীষ্মের দলবদল থেকে শুরু হওয়া এমবাপেকে নিয়ে পিএসজি ও রিয়াল মাদ্রিদের দীর্ঘদিনের দ্বিমুখী লড়াইয়ের।

গত মৌসুমের শেষে পাকাপাকিভাবে পিএসজিকে ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছিলেন এমবাপে। কিন্তু পিএসজি তাকে ছাড়তে ছিল নারাজ। রিয়াল রেকর্ড ট্রান্সফার ফি দিতে প্রস্তুত থাকলেও শেষ পর্যন্ত মন বদলায়নি পিএসজি কর্মকর্তাদের।

এরপর সময় গড়িয়ে শুরু হয় নতুন বছর। ১ জানুয়ারি থেকেই ‘ফ্রি এজেন্ট’ হিসেবে নতুন ঠিকানা বেছে নেওয়ার পথ খুলে যায় এমবাপের। নানা সময়ে তার রিয়ালে যোগ দেওয়া নিয়ে খবর এলেও তিনি নিজে কিছু বলেননি। তবে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে ঘটনাপ্রবাহ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছিল, তাতে মনে হচ্ছিল ‘প্রিয় ক্লাব’ রিয়ালেই যোগ দিতে যাচ্ছেন ২৩ বছর বয়সী এই ফুটবলার।

এরপর গত কয়েক সপ্তাহে পট পরিবর্তন হয়েছে কয়েক দফা। সবশেষে গত শনিবার এর নাটকীয়তা পায় নতুন মাত্রা। এরপরই আসে এমবাপের চূড়ান্ত ঘোষণা।

গুঞ্জন রয়েছে, নতুন চুক্তিতে পিএসজি তো বটেই, সব ফুটবলারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বেতন পাবেন এমবাপে। এছাড়া আরও অনেক সুযোগ-সুবিধা পাবেন তিনি, যার মধ্যে রয়েছে নতুন কোচ ও খেলোয়াড় কেনায় মত দেওয়ার মতো বিষয়ও।

তবে সোমবার পিএসজি সভাপতি নাসের আল-খেলাইফির সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে এসে এমবাপে জানালেন, অর্থ ও অন্যান্য বিষয় ছাপিয়ে তার কাছে মুখ্য ছিল শীর্ষ তারকাদের সঙ্গে এক দলে খেলা।

“সত্যি বলতে, (চুক্তি নবায়নের সময়) আমরা খুব অল্প সময় পারিশ্রমিক ও ছবি স্বত্ব নিয়ে কথা বলেছিলাম। আমি যা চাই তা হলো, শীর্ষ খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলা।”

“বছরটা আমাদের জন্য কঠিন ছিল, যেটা হতাশাজনক। পিএসজিতে এটা লিওনেল মেসির প্রথম বছর এবং নেইমার চোটাক্রান্ত থাকায় আমরা তিনজন একসঙ্গে খুব বেশি খেলতে পারিনি।”

গ্রীষ্মের দলবদলে বার্সেলোনা থেকে প্যারিসের ক্লাবটিতে যোগ দেন মেসি। নতুন ক্লাবে প্রথম মৌসুমে নিজের সেরা ছন্দে দেখা যায়নি রেকর্ড সাতবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এই ফরোয়ার্ডকে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৩৪ ম্যাচে তিনি গোল করেছেন ১১টি।

চোটের জন্য মৌসুমের একটা বড় সময় মাঠের বাইরে থাকা নেইমার সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ম্যাচ খেলতে পেরেছেন ২৮টি। ব্রাজিলিয়ান তারকা জালের দেখা পেয়েছেন ১৩ বার।