ব্যাংকের বিনিয়োগে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে পুঁজিবাজার

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-11 17:53:29 BdST

সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের পদক্ষেপে ব্যাংকগুলো বিনিয়োগ শুরু করায় ঘুরে দাঁড়াচ্ছে বাংলাদেশের পুঁজিবাজার।

সপ্তাহের চতুর্থ দিন বুধবার দুই বাজারেই মূল্যসূচকের পাশাপাশি লেনদেন বেড়েছে।

প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭৫ দশমিক ১৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৮ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ২৩১ দশমিক ৪৮ পয়েন্টে।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) প্রধান সূচক সিএএসপিআই ২০৬ দশমিক ৬১ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৬৩ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ১২ হাজার ৮৭৮ দশমিক ৩২ পয়েন্টে।

বুধবার ডিএসইতে ৪২২ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। মঙ্গলবার লেনদেনের অংক ছিল ৩২৮ কোটি ৩৪ লাখ টাকা।

সিএসইতে ১৭ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। মঙ্গলবার লেনদেনের পরিমাণ ছিল ১২ কোটি ৬৬ লাখ টাকা।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হওয়ার পর সোমবার বড় ধসের কবলে পড়ে পুঁজিবাজার। ওই দিন ডিএসইএক্স এক দিনেই ৬ দশমিক ৫১ শতাংশ বা ২৭৯ পয়েন্ট হারিয়ে বাজার ৪ হাজার ৮ পয়েন্টে নেমে আসে।

কিন্তু রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকসহ কয়েকটি ব্যাংকের ‘বিশেষ তহবিল’ গঠনের মাধ্যমে বাজারে বিনিয়োগ করার খবরে পরের দিন মঙ্গলবার বাজারে উল্লম্ফন দেখা যায়।

মঙ্গলবার ডিএসইএক্স বেড়েছিল দেড়শ পয়েন্টের মতো। বুধবারের ৭৫ পয়েন্ট যোগ করলে দুই দিনে এই সূচক ২২৫ পয়েন্টের মতো বেড়েছে।

বাজার বিশ্লেষক ডিএসই’র সাবেক সভাপতি বর্তমান পরিচালক রকিবুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন,“ বাজারে তারল্য বাড়াতে ব্যাংকগুলোকে বাড়তি বিনিয়োগের সুযোগ  দেয়া হয়েছিল। খবর ছিল ব্যাংক গুলো সেই সুযোগ নিচ্ছে না। ফলে শেয়ারের দাম কমছিল।

“কিন্তু গতকালকে (মঙ্গলবার) আমরা পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর সাথে বসেছিলাম; তারা বলেছে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করবে। ফলে আস্থা ফিরতে শুরু করেছে।”

মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সোনালী ব্যাংক জানিয়েছে, তারা পুঁজিবাজারকে চাঙ্গা করতে ২০০ কোটি টাকার ‘বিশেষ তহবিল’ গঠন করে বিনিয়োগ শুরু করেছে।

বেসরকারি খাতের কয়েকটি ব্যাংকও পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য ২০০ কোটি টাকা তহবিল গঠন করেছে।

বুধবার ডিএসইতে অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১৯ দশমিক ১৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৯৭৯ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ২৩ দশমিক ৪৫ বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৪১৩ পয়েন্টে।

লেনদেনে অংশ নিয়েছে ৩৫৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৭০টির।কমেছে ৪০টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টি কোম্পানির শেয়ার দর।

অন্যদিকে সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২৩৭টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৭৮টির, কমেছে ৩৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টির দর।