ধসের বাজারে ৩০% লভ্যাংশ ঘোষণা ডাচ-বাংলার

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-16 19:57:41 BdST

bdnews24

পুঁজিবাজারে চলমান ধসের মধ্যে তালিকাভুক্ত প্রথম কোনো ব্যাংক হিসেবে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৩০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে ডাচ-বাংলা ব্যাংক।

শেয়ারের সূচকে টানা দুই দিনের ধসের পর সোমবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এই লভ্যাংশের খবর কোনো প্রভাব ফেলতে পারেনি।

আগের ধারাবাহিকতায় এদিনও সূচকে বড় ধসের মধ্য দিয়েই বাজারে লেনদেন শেষ হয়, ডাচ বাংলা ব্যাংকের শেয়ারের দাম কমেছে প্রায় ৯ শতাংশ।

ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৯৬ দশমিক ৭৫ পয়েন্ট বা চার দশমিক ৯৫ শতাংশ কমে নেমে গেছে ৩ হাজার ৭৭২ দশমিক ৫৫ পয়েন্টে, যা ছয় বছর পাঁচ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন।

সব মিলে তিন দিনে ৪২৩১ পয়েন্ট থেকে ডিএসইএক্স ৪৫৯ পয়েন্ট বা ১২ দশমিক ১৬ শতাংশ কমেছে।

আগের দিন ডিএসইতে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের শেয়ারের সমাপনী মূল্য ছিল ৫৮ টাকা ১০ পয়সা, যা সোমবার সর্বশেষ ৫৩ টাকায় লেনদেন হয়। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে ৫ টাকার বেশি কমেছে।

গত অর্থবছরের জন্য ৩০ শতাংশ লভ্যাংশ এদিনই ঘোষণা করে ডাচ-বাংলা ব্যাংক। তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংকের মধ্য এটাই সর্বপ্রথম লভ্যাংশ।

ডাচ-বাংলা ব্যাংকের প্রতিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের শেয়ারের জন্য একজন বিনিয়োগকারী ৩ টাকা করে লভ্যাংশ পাবেন।

লভ্যাংশ পেতে হলে রেকর্ড ডেট ৭ এপ্রিল পর্যন্ত এই শেয়ারের মালিক থাকতে হবে।

সাধারন সভায় অনুমোদন পেলে এই লভ্যাংশ সাধারণ শেয়ারহোল্ডাররা পাবেন। সাধারণ সভা বা এজেএমের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ২৭ এপ্রিল।

ডাচ-বাংলা ব্যাংকের মোট শেয়ার ৫০ কোটি। এর মধ্যে ৮৬ কোটি ৯৯ লাখ শেয়ার আছে উদ্যোক্তা পরিচালকদের হাতে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে আছে ৩ দশমিক ৯৯ শতাংশ শেয়ার। বিদেশিদের হাতে আছে দশমিক শূন্য ২ শতাংশ শেয়ার। সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আছে ৯ শতাংশ শেয়ার।

২০০১ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ডাচ-বাংলা ব্যাংক ঢাকার পুঁজিবাজারে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে লেনদেন হচ্ছে।

ব্যাংকটি ২০১৯ সালে শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ৮ টাকা ৬৮ পয়সা, যা আগের বছর ছিল ৮ টাকা ৪০ পয়সা। এসময় তাদের শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য ছিল ৫৪ টাকা ৮৯ পয়সা।

সর্বশেষ অনীরিক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, কোম্পানিটির পিই হয়েছে ৬।