ডিএসই: দাম কমার শীর্ষ দশের ৯টিই বীমার

  • নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-05-05 20:51:50 BdST

bdnews24
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্চ ভবন। ছবি: মোস্তাফিজুর রহমান

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বুধবার বীমা খাতের শেয়ারে বড় দরপতন হয়েছে।

অনেকদিন ধরে বাড়তে থাকা বীমা কোম্পানির বেশিরভাগ শেয়ারের দাম যেমন কমেছে, তেমনি এদিন সবচেয়ে বেশি দর হারানো ১০টির তালিকায় ৯টিই ছিল এ খাতের শেয়ার।

দিন শেষে দেখা গেছে, তালিকাভুক্ত ৫০টি বীমা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম কমেছে ৩৬টির। বেড়েছে ১১টির ও অপরিবর্তিত ছিল ৩টির।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালক শাকিল রিজভী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “বেশ কয়েক দিন ধরে দেশের বাজারে বীমা খাতের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ ছিল। এখন বিনিয়োগকারীরা দেখছেন কোন খাতের শেয়ারের দাম কম আছে, তারা হয়ত সেই খাতের দিকে নজর দিচ্ছেন।“

বীমার শেয়ারের দর কমলেও আগের দিনের ধারাবাহিকতায় বেড়েছে ব্যাংক ও ব্যাংক-বর্হিভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার।

এই দুই খাতের ভর করে সপ্তাহের চতুর্থ দিন বুধবার সূচক ও লেনদেন বেড়েছে উভয় বাজারে।

ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ৫৩ দশমিক ১২ পয়েন্ট বা দশমিক ৯৬ শতাংশ বেড়ে ৫ হাজার ৫৮৮ দশমিক ৮৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এদিন ৩১টি তালিকাভুক্ত ব্যাংকের মধ্যে দাম কমেছে মাত্র ২টির। বেড়েছে ২৭টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১টির। আর লেনদেন হয়নি একটির।

তালিকাভুক্ত ২৩টি ব্যাংক-বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম কমেছে ১টির। বেড়েছে ১৯টির এবং অপরিবর্তিত ছিল একটির। লেনদেন হয়নি দুটির।

অন্যদিকে তালিকাভুক্ত ৩৭টি মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দাম বেড়েছে সবকটির।

ঢাকার পুঁজিবাজারে লেনদেনও আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। বুধবার ঢাকায় ১ হাজার ৩৯৮ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়, যা আগের কর্মদিবসে ১ হাজার ৩৫৬ কোটি ১০ লাখ টাকা ছিল।

মার্চেন্ট ব্যাংক লংকাবাংলার গবেষণায় দেখা গেছে, দাম কমলেও আগের মত লেনদেনে বীমা খাতের প্রাধান্য ছিল। তবে ব্যাংক ও ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ আগের তুলনায় বেড়েছে।

ডিএসইতে ৪১৬ কোটি ৭১ লাখ টাকার বীমার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা মোট লেনদেনের ২৯ দশমিক ৮০ শতাংশ।

ব্যাংক ও ব্যাংক-বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২১৬ কোটি ১৮ লাখ টাকার, যা মোট লেনদেনের সাড়ে ১৫ শতাংশ। এই দুই খাতে আগরের দিনের তুলনায় ৬০ শতাংশ বেশি লেনদেন হয়েছে।

বুধবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৫৭টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২০৩টির, আর কমেছে ১০০টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টির দর।

এ বাজারের অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক দশমিক ৬৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ২৪৯ দশমিক ৯৩ পয়েন্টে।

আর ডিএস৩০ সূচক ১৩ দশমিক ৩৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২ হাজার ১৩২ দশমিক ১১ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

বেক্সিমকো লিমিটেড, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, ন্যাশনাল ফিড মিল, রবি আজিয়াটা, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স, সন্ধানী লাইফ, বিডি ফাইন্যান্স, ম্যাকসন্স স্পিনিং, রূপালী লাইফ ও লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ।

দাম বাড়ার শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

মেট্রো স্পিনিং, এসইএমএল লেকচার ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ড, প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিঃ ফাঃ, ডেল্টা স্পিনার্স, ওরিয়ন ফার্মা, ন্যাশনাল ফিড মিল, এনআরবিসি ব্যাংক, প্রাইম ফাইন্যান্স, এসইএমএল এফবিএসএল গ্রোথ ফান্ড ও আইএফআসি ব্যাংক।

দাম কমার শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

ঢাকা ইন্স্যুরেন্স, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স, ফিনিক্স ইন্স্যুরেন্স, সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স, ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্স, শ্যামপুর সুগার মিল, নিটল ইন্স্যুরেন্স, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স, তাক্কাফুল ইন্স্যুরেন্স ও সিটি জেঃ ইন্স্যুরেন্স।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) প্রধান সূচক সিএএসপিআই ১৫৩ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৬ হাজার ১৪৫ দশমিক ১৪ পয়েন্টে।

এই বাজারেও লেনদেন বেড়েছে বুধবার। মোট ৪৩ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিন ছিল ৩৭ কোটি ১৭ লাখ টাকা।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২৭১টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৫৯টির, কমেছে ৮৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির দর।