ব্যাংকের শেয়ারে ভর করে দেড় হাজার কোটি টাকা লেনদেন

  • নিজস্ব প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-05-17 18:03:11 BdST

bdnews24

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইতে গত কয়েকদিন ধরে লেনদেন দেড় হাজার কোটি টাকার কাছাকাছি এসে থমকে যাওয়ার প্রবণতা সোমবার ব্যাংকের শেয়ারে ভর করে পেরিয়ে গেছে।

২ মে থেকে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে ৯ দিন ১ হাজার ৩০০ কোটি টাকার ওপরে লেনদেন হয়েছে। সর্বশেষ তিন দিন যা ছিল ১ হাজার ৪০০ কোটি টাকার বেশি।

এই কয়দিন এর মধ্যেই লেনদেন ঘুরপাক খেলেও সোমবার তা দেড় হাজার কোটি টাকার ঘর ছাড়িয়ে

১ হাজার ৫৩৪ কোটি ৬০ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে।

এই লেনদেন প্রায় চার মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে এর চেয়ে বেশি লেনদেন ছিল চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি। সেদিন শেয়ার কেনাবেচা হয়েছিল ১ হাজার ৫৮৫ কোটি ২২ লাখ টাকার।

ডিএসইতে লেনদেনও আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। সোমবার লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৪১৮ কোটি ৩৬ লাখ টাকা ছিল।

সোমবার মোট লেনদেনের ১৯ দশমিক ১৩ শতাংশ ছিল ব্যাংক এবং ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ারে।

৮৭ শতাংশ ব্যাংকের শেয়ারের দাম বাড়ায় তা সূচকেও ইতিবাচক প্রভাব রেখেছে।

 এ কারণে দিনভর ওঠানামা এবং লেনদেনের এক পর্যায়ে সূচক কমে গেলেও শেষ পর্যন্ত সূচক ঊর্ধ্বমুখী থেকেছে।

এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ২৬ দশমিক ৯২ পয়েন্ট বা দশমিক ৪৬ শতাংশ বেড়ে ৫ হাজার ৮৪০ দশমিক শূন্য ৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

সোমবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৬৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪২টির, কমেছে ১৭৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৮টির দর।

ডিএসইতে লেনদেন হওয়া শেয়ারের মধ্যে ৩৯ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের দাম বেড়েছে। কিন্তু ব্যাংকিং খাতের শেয়ারের দাম বেড়েছে ৮৭ শতাংশ।

ব্যাংক খাতে তালিকাভুক্ত ৩১টি কোম্পানির মধ্যে ২৭টির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ২টির, অপরিবর্তত ছিল ২টির ।

এদিন প্রায় সবকটি বস্ত্র খাতের কোম্পানির দাম কমেছে। শতকরা হিসেবে কমেছে ৯১ শতাংশ শেয়ারের দাম।

এই খাতে তালিকাভুক্ত ৫৬টি কোম্পানির মধ্যে ৩টির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ৫১টির এবং অপরিবর্তত ছিল ২টির দাম।

সোমবার মোট লেনদেনের ১৯ দশমিক ১৩ শতাংশ ছিল ব্যাংক এবং ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শেয়ারে।

বীমা খাতে লেনদেন হয়েছে ১৩ দশামিক ৫১ শতাংশ, ওষুধ খাতে ৫ দশমিক ৭১ শতাংশ এবং বস্ত্র খাতে হয়েছে ৭ দশমিক ০৩ শতাংশ।

ঢাকার অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২ দশমিক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ২৮৫ দশমিক শূন্য ৯ পয়েন্টে।

আর ডিএস৩০ সূচক ৬ দশমিক ৬৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২ হাজার ১৯৯ দশমিক ২৯ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

বেক্সিমকো লিঃ, রবি আজিয়াটা, সাইফ পাওয়ারটেক, প্রাইম ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক, বিএটিবিসি, ন্যাশনাল ফিড মিল, সিটি ব্যাংক, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স ও এসএস স্টিল।  

দাম বাড়ার শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, এনআরবিসি ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, জি কিউ বলপেন, প্রইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স, স্ট্যান্ডর্ড ব্যাংক ও রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স।

দাম কমার শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ, মীর আকতার, জাহিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ, ফারইস্ট নিটিং, এমারেল্ড অয়েল, আলিফ ম্যানুফেকচারিং, মোজাফ্ফর হোসেন স্পিনিং, খান ব্রাদর্স পিপি, অ্যাপোলো ইস্পাত ও ড্রাগন সোয়েটার।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) প্রধান সূচক সিএএসপিআই ৭৩ দশমিক ৪০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৬ হাজার ৯২২ দশমিক ৫৯ পয়েন্টে।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) রোববার ১১৫ কোটি ২৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিন ছিল ৭১ কোটি ১৫ লাখ টাকা।

সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩০০টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৫টির, কমেছে ১৪৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির দর।