পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

নেপাল-বাংলাদেশ ব্যাংকের মালিকানায় থাকবে না আইএফআইসি ব্যাংক

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-14 17:25:25 BdST

bdnews24

নেপালে যৌথ মালিকানার কোম্পানি নেপাল-বাংলাদেশ ব্যাংকের মালিকানার অংশ ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ফাইনান্স ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড কমার্স (আইএফআইসি) ব্যাংক।

বাংলাদেশের প্রথম প্রজন্মের বেসরকারি এই ব্যাংকের তরফ থেকে বুধবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই) এ তথ্য জানানো হয়।

আইএফআইসি ব্যাংক বলেছে, ভালো দাম পেলে তারা নেপালের ব্যাংকটিতে থাকা সব শেয়ার বিক্রি করে সেই অর্থ বাংলাদেশে ফেরত নিয়ে আসবে।

২৭ বছর আগে দক্ষিণ এশীয় দেশ নেপালে ওই ব্যাংকের গোড়াপত্তন করে আইএফআইসি। সেসময় এর ৫০ শতাংশের মালিকনা ছিল আইএফআইসির হাতে। বাকি ৫০ শতাংশের মালিক ছিলেন নেপালের কয়েকজন উদ্যোক্তা।

১৯৯৪ সালের ৬ জুন চালু হওয়া নেপাল-বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪০ দশমিক ৮৯ শতাংশ শেয়ার এখন আইএফআইসি ব্যাংকের হাতে রয়েছে। ব্যাংকটি নেপালের পুঁজিবাজারেও তালিকাভুক্ত।

নেপাল এবং বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমোদন পেলে আইএফআইসি ব্যাংক তাদের শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে পারবে।

বুধবার নেপাল-বাংলাদেশ ব্যাংকের শেয়ার লেনদেন হচ্ছিল নেপালি মুদ্রায় ৪৪৩ রুপি দরে, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩১৫ টাকা ৫০ পয়সার মত। নেপালি ১ রুপিতে বাংলাদেশি ৭১ পয়সা ধরে এই হিসাব করা হয়েছে।

নেপাল-বাংলাদেশ ব্যাংকের মোট শেয়ার সংখ্যা ৯ কোটি ৪৮ হাজার ২১২টি। বাজার মূলধন ৩ হাজার ৯৮৯ কোটি ১৪ লাখ রুপি বা ২ হাজার ৮৩২ কোটি ২৯ লাখ টাকা। সে হিসাবে আইএফআইসি ব্যাংকের ৪০ দশমিক ৮৯ শতাংশ শেয়ারের মূল্য দাঁড়ায় ১ হাজার ১৫৮ কোটি ৪১ লাখ টাকা।

মালিকানা ছেড়ে দেওয়ার খবরে বুধবার ঢাকার পুঁজিবাজারে আইএফআইসি ব্যাংকের শেয়ারের দাম বেড়েছে। মঙ্গলবার ১২ টাকা ৬০ পয়সায় বিক্রি হওয়া এ শেয়ার বুধবার ১৩ টাকা ২০ পয়সায় বিক্রি হয়েছে।

১৯৮৬ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আইএফআইসি ব্যাংকের শেয়ার বর্তমানে লেনদেন হচ্ছে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে।

২০১৮ সালে ১৬৪ কোটি ৯৫ লাখ টাকা মুনাফা করে আইএফআইসি ব্যাংক বিনিয়োগকারীদের প্রতি ১০০ শেয়ারে নতুন ১০টি নতুন শেয়ার লভ্যাংশ দেয়।

২০১৯ সালে ২৮২ কোটি ৭৭ লাখ টাকা মুনাফা করে আইএফআইসি ব্যাংক। সেবছরও বিনিয়োগকারীদের প্রতি ১০০ শেয়ারে নতুন ১০টি নতুন শেয়ার লভ্যাংশ দেয়।

আর ২০২০ সালে ১১৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা মুনাফা করে বিনিয়োগকারীদের প্রতি ১০০ শেয়ারে নতুন ৫টি নতুন শেয়ার লভ্যাংশ দিয়েছে আইএফআইসি ব্যাংক।

ব্যাংকটির মোট শেয়ার সংখ্যা ১৭০ কোটি ৮ লাখ ৬৭ হাজার ৫৬১টি। এর মধ্যে ৪ দশমিক ১১ শতাংশ আছে পরিচালকদের হাতে। সরকারের হাতে আছে ৩২ কোটি ৭৫ লাখ।

প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে ২৩ দশমিক ৯৪ শতাংশ, বিদেশিদের হাতে দশমিক ৭২ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে ৩৮ দশমিক ৪৮ শতাংশ শেয়ার আছে।

আইএফআইসি ব্যাংকের বর্তমান বাজার মূলধন ২ হাজার ১৪৩ কোটি টাকা। কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ১ হাজার ৭০০ কোটি ৮৭ লাখ টাকা; রিজার্ভের পরিমাণ ১ হাজার ৮১ কোটি ৫৩ লাখ টাকা।