পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

সাড়ে ৩ মাসে বড় দরপতন পুঁজিবাজারে

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-10-18 17:28:38 BdST

bdnews24

সপ্তাহের দ্বিতীয় দিন বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে শেয়ারের মূল্য সূচকে বড় পতন হয়েছে।

সোমবার দিন শেষে প্রধান বাজার ঢাকার প্রধান সূচক আগের দিনের চেয়ে প্রায় সোয়া শতাংশ ও চট্টগ্রামের প্রধান সূচক প্রায় দেড় শতাংশ কমেছে।

এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ৮৯ দশমিক ১৯ পয়েন্ট কমে ৭ হাজার ৯৭ দশমিক ২৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

একদিনে এর আগে সর্বোচ্চ দরপতন ছিল ২০২১ সালের ২৭ জুন। সেদিন ১০০ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৬৪ শতাংশ হারিয়েছিল ডিএসইএক্স।

তবে এই দরপতনের মধ্যে কোনো অস্বাভাবিকতা দেখছেন না পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টরা। এটাকে মূল্য সংশোধন হিসেবেই দেখছেন তারা।

বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সভাপতি ছায়েদুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সূচক অনেক বেড়েছিল। এখন মূল্য সংশোধন হচ্ছে।

“এই অবস্থায় বিনিয়োগকারীরা একটু ভীত হয়েছেন। এ কারণে শেয়ার বিক্রি করে দিচ্ছেন। আর বিক্রির চাপে পুঁজিবাজারে সূচক কমে যাচ্ছে।”

সোমবার নিয়ে টানা ছয় দিন ৩ দশমিক ৬৭ শতাংশ সূচক কমল ডিএসইতে। ১০ অক্টোবর সূচক ছিল ৭ হাজার ৩৬৮ পয়েন্ট।

এই বাজারে লেনদেনের পরিমাণ আগের দিনের চেয়ে ১৫ দশমিক ৮০ শতাংশ বা ২৬১ কোটি ৫৪ লাখ টাকা কমেছে।

ঢাকায় একহাজার ৩৯৩ কোটি ৮৩ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে, যা আগের কর্মদিবসে ছিল একহাজার ৬৫৫ কোটি ৩৮ লাখ টাকা।

এর আগে এর চেয়ে কম লেনদেন হয়েছিল গত ২৮ জুলাই। সেদিন লেনদেন ছিল একহাজার ৩৬০ কোটি ৮৯ লাখ টাকা।

সোমবার ডিএসইতে ৮৭ শতাংশ কোম্পানির দাম কমেছে। বিপরীতে ৯ শতাংশের দাম বেড়েছে; অপরিবর্তিত রয়েছে ৫ শতাংশ কোম্পানির দাম।

এদিন লেনদেনে ছিল ৩৭৪টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৩৩টির; কমেছে ৩২৪টির; এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টির দর।

ঢাকার অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২১ দশমিক ১৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৫২৫ দশমিক ১৮ পয়েন্টে।

ডিএস৩০ সূচক ২৬ দশমিক ৫৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২ হাজার ৬৭৮ দশমিক ৫৬ পয়েন্টে।

লেনদেনে শীর্ষ ১০

ওরিয়নফার্মা, ডেল্টা লাইফ, লাফার্জ, ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো, ফরচুন সুজ, বেক্সিমকো, আইএফআইসি, এনআরবিসি ব্যাংক, জেনেক্স ইনফোসিস এবং পাওয়ার গ্রিড।

দরবৃদ্ধিতে শীর্ষ ১০

গোল্ডেনসন, সাউথ বাংলা ব্যাংক, বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং, সোনালী পেপার, ন্যাশনাল হাউজিং, ওরিয়নফার্মা, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, আরামিট ও ফেকডিল।

দরপতনে শীর্ষ ১০

মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক, বিচ হ্যাচারী, ঢাকা ডাইং, সাভার রিফ্র্যাক্টরিজ লিমিটেড, উসমানিয়া গ্লাস শীট ফ্যাক্টরী, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, বিডি ওয়েল্ডিং, পেপার প্রসেসিং অ্যান্ড প্যাকেজিং, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস এবং বাংলাদেশ মনস্পল পেপার।

সোমবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) প্রধান সূচক সিএএসপিআই ৩১৪ দশমিক ৮৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২০ হাজার ৭০৭ দশমিক ৬৯ পয়েন্টে।

এই বাজারে লেনদেনের পরিমাণও আগের দিনের চেয়ে ১৬ দশমিক ৮১ শতাংশ বা ১০ কোটি ৭৩ লাখ টাকা বেড়েছে।

এদিন মোট ৭৪ কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার হাতবদল হয়, যা আগের দিন ছিল ৬৩ কোটি ৮৩ লাখ টাকা।

সিএসইতে ৩০৭টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৩৫টির, কমেছে ২৫৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৫টির দর।