স্মার্টফোন বাজারে অ্যাপলের বর্তমান

  • তাহমিন আয়শা মুর্শেদ, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2016-08-22 19:17:27 BdST

bdnews24

২০০৭ সালের জানুয়ারি মাসে যখন আইফোন প্রথম বাজারে ছাড়া হয়েছিল তখন প্রতিষ্ঠান প্রধান স্টিভ জবসের জোরালো দাবি ছিল যে, নতুন এই পণ্য সময়ের চেয়ে প্রায় পাঁচ বছর এগিয়ে আছে। বলা হচ্ছে- জানুয়ারি মাসের ওই সকালে স্টিভ জবস সম্ভবত ভুল বলেছিলেন।

এই পূর্বাভাসে জবস হয়তো কিছুটা কৃপণতা দেখিয়ে ফেলেছেন। আইফোন বাজারে আসার প্রায় নয় বছর হতে চলেছে এবং এখন পর্যন্ত আইফোনের চেয়ে ভাল ফোন বাজারে আসেনি, ভাষ্য ব্যবসা-বাণিজ্যবিষয়ক মার্কিন সাইট বিওনেস ইনসাইডার। এতোগুলো বছর ধরে আইফোনের 'লেড' কখনও সংকুচিত হয়নি। বরং এটি হয়েছে ক্ষুরের মতোই পাতলা।

সম্প্রতি আইফোনের সর্বশেষ সংস্করণকে টক্কর দিতে বাজারে এসেছে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৭। এটি অনেকগুলো দিক থেকেই আইফোন থেকে ভাল। আইফোনের চেয়ে ভালো ডিজাইন আর পানি প্রতিরোধী ক্ষমতা ছাড়াও বেতার চার্জিংয়ের মতো ভাল কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে এই ফোনে। এ ছাড়াও এই ফোনে আছে ব্যবহারযোগ্য অধিক ধারণক্ষমতা।

আগের দুই বছর আইফোনের ডিজাইন প্রায় একই ছিল এবং ধারণা করা হচ্ছে চলতি বছর সেপ্টেম্বরে মুক্তি পেতে যাওয়া আইফোন ৭-এর ডিজাইনেও খুব একটা পরিবর্তন হবে না বলেই ধারণা করা হচ্ছে। এ ছাড়াও ওয়্যারলেস চার্জিং, পানি প্রতিরোধী ক্ষমতা বা ডিজাইন উন্নত করার দিকেও তেমন মনোযোগী নয় অ্যাপল। সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে- দ্রুত প্রসেসর আর ভাল ক্যামেরা ছাড়া নতুন আইফোন বাজারে আসলেও তা তার ব্যবহারকারিদের মোটেও আকৃষ্ট করতে পারছে না।   

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৭ ইতোমধ্যে বাজারে শক্ত অবস্থান নিলেও, এখনও অ্যাপল সামান্য এগিয়ে বলেই মত বিজনেস ইনসাইডার-এর। এর মূল কারণ হচ্ছে আইওএস (অ্যাপলের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম), স্যামসাং বা অন্য কোনো প্রতিষ্ঠান যার কোন প্রতিলিপি প্রস্তুত করতে পারেনি।

গুগলের সর্বোচ্চ চেষ্টা সত্ত্বেও অ্যান্ড্রয়েডের অপারেটিং সিস্টেম “এখনও অগোছালো এবং সামঞ্জস্যহীন”। ডিভাইসগুলো এখনও ক্রমাগত হালনাগাদ করা সম্ভব হয় না। ডেভেলাপাররা তাদের সর্বোৎকৃষ্ট অ্যাপগুলো আইফোন সংস্করণের পরেই বানাতে উদ্যোগী হন। তা ছাড়াও স্যামসাংয়ের অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণ 'টাচউইগ' উন্নতির বদলে ক্রমাবনতির দিকেই যাচ্ছে।

এতকিছুর পরেও, চলতি বছরটা খুব একটা ভাল যাচ্ছে না অ্যাপলের। একমাত্র 'আইওএস' ছাড়া ডিজাইন থেকে শুরু করে অন্য সব প্রয়োজনীয় হার্ডওয়্যারের দিক থেকে প্রতিযোগী ফোন প্রতিষ্ঠানগুলো এগিয়ে গিয়েছে।

এক সময়ের আইফোনের নেতৃত্বের প্রাধান্য এখনও ফুরিয়ে যায়নি। তবুও আইফোন সময়ের সঙ্গে স্যামসাংয়ের তৈরি গোলকধাঁধা আর সফটওয়্যার ইসুর সমাধানের সঙ্গে তাল মেলাতে পারছে না আর।


ট্যাগ:  স্যামসাং  অ্যাপল  আইওএস  স্মার্টফোন