শিশুদের স্মার্টওয়াচে হ্যাকিং ঝুঁকি

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2017-10-18 14:03:04 BdST

bdnews24
ছবি- এনসিসি 

শিশুদের জন্য বানানো কিছু স্মার্টওয়াচে নিরাপত্তা ত্রুটি আছে যার ফলে হ্যাকাররা এই ডিভাইসগুলোর নিরাপত্তা লঙ্ঘন করতে পারে, এমন সতর্ক বার্তা প্রকাশ করেছে একটি পর্যবেক্ষক সংস্থা।

গ্যাটর আর জিপিএস ফর কিডস -সহ শিশুদের জন্য বানানো বিভিন্ন ব্র্যান্ডের  স্মার্টওয়াচ পরীক্ষা করেছে নরওয়েজিয়ান কনজিউমার কাউন্সিল (এনসিসি)। সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয়, তাদের পরীক্ষায় দেখা গেছে আক্রমণকারীরা নজরদারি, আড়িপাতা আর এমনকি এই ডিভাইস ব্যবহারকারীদের সঙ্গে যোগাযোগও করতে পারবে।

এই ধরনের সমস্যা থাকা ডিভাইসগুলোর উৎপাদনকারীরা ইতোমধ্যে এ সমস্যার সমাধান করেছে বা এখন তা চিহ্নিত করছে বলে বিবিসি’র প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এনসিসি’র এমন সতর্কবার্তার জবাবে ব্রিটিশ বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান জন লিউয়িস অভিযোগ আসা একটি ব্র্যান্ডের স্মার্টওয়াচ বিক্রি বন্ধ করেছে।

এই পরীক্ষায় ব্যবহার করা স্মার্টওয়াচগুলো সাধারণত মৌলিক স্মার্টফোনের মতো কাজ করে। এগুলো দিয়ে মা-বাবারা তাদের শিশু সন্তানদের অবস্থানের উপর নজর রাখতে পারেন। কিছু কিছু স্মার্টওয়াচে রয়েছে জরুরী বার্তা এসওএস পাঠানোর সুবিধা, যা দিয়ে শিশুরা তাৎক্ষণিকভাবে তাদের মা-বাবাকে ফোন করতে পারে।

এই স্মার্টওয়াচগুলো সাধারণত প্রায় শত পাউন্ড মূল্যে বিক্রয় করা হয়।

এনসিসি’র পক্ষ থেকে বলা হয়, গ্যাটর আর জিপিএস ফর কিডস-এর স্মার্টোয়াচগুলো এনক্রিপশন ছাড়াই ডেটা সংরক্ষণ করে। এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সংস্থাটি।

এনসিসি বলে, এর মানে হচ্ছে সাধারণ হ্যাকিং কৌশল ব্যবহার করে হ্যাকাররা শিশুদের নজরদারি করতে পারে বা কোনো শিশুর অবস্থান সম্পূর্ণ ভিন্ন জায়গায় দেখাতে পারে।


ট্যাগ:  স্মার্টওয়াচ  হ্যাকিং