২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৫

‘বেশি বাস্তব’: আটকে দেওয়া হলো এআই প্রোগ্রাম

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-02-17 17:03:46 BdST

bdnews24

খবরটি এমনভাবে লেখা হয়েছে যে, আপনি হয়তো সত্যিসত্যিই বিশ্বাস করে বসবেন- রিসাইক্লিং আদতেই প্রকৃতির জন্য ক্ষতিকর! আর ভুয়া তথ্য ব্যবহার করে উদ্ভট এই খবরটি লিখেছে একটি এআই প্রোগ্রাম। এটি এতাটাই নিখুঁতভাবে মানুষের ভাবভঙ্গি নকল করতে পারে যে, শেষ অব্দি একে ‘আটকে’ রাখতে হয়েছে।

নতুন এক ‘ডিপ ফেইক’ এআই ব্যবস্থা নিয়ে সাম্প্রতিক এই হাঙ্গামা। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই নিয়ে বিভিন্ন সিস্টেম বানাতে কাজ করে ওপেন এআই নামের প্রতিষ্ঠানটি। আলোচিত নতুন এই সিস্টেম বানিয়েছে ওপেনএআই। আর এই প্রতিষ্ঠানের পেছনে রয়েছে টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট আর প্রযুক্তি গুরু ইলন মাস্ক-এর হাত।

বানানোর পর ভুয়া সংবাদ প্রতিবেদন বানাতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে এই সিস্টেমকে। মানুষের দেওয়া স্বল্প পরিমাণে ডেটা ইনপুট নিয়েও কাজ করতে পারে এটি।

তৈরির পর এই এআই সিস্টেমকে দিয়ে পরীক্ষামূলকভাবে লিখিয়ে নেওয়া ভুয়া এই প্রতিবেদনগুলো এতটাই ‘বাস্তবধর্মী’ হয়ে যাচ্ছে যে এর পুরো সিস্টেম কোড উন্মুক্ত না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। তবে, প্রতিষ্ঠানটি একটি ছোট সংস্করণ ছেড়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছ ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড মিরর।

এআই সিস্টেম বানানোর প্রকল্পে একটি দল কাজ করছে। তারা সিস্টেমটি এমনভাবে ডিজাইন করেছেন যে এটি প্রায় ৮০ লাখ ওয়েব পেইজ থেকে স্বাধীনভাবে ডেটা নিতে পারে।

এটি সামাজিক মাধ্যমগুলোর সংবাদ সংগ্রহ করে সাইটে থাকা লিংকগুলো থেকেও ডেটা ব্যবহার করতে পারে।

গবেষকদের প্রকাশ করা কয়েকটি উদাহরণ থেকে দেখা যায়, কীভাবে সত্য বলার মতো সুরে পুরো ভুয়া সংবাদ প্রতিবেদন বানিয়েছে এই সিস্টেম। এর মধ্যে একটি সংবাদ ছিল রিসাইক্লিং ঠেকানো নিয়ে।

এই ধরনের এআই প্রযুক্তি ব্যবহার করে অনেক উপকার হয়তো পাওয়া সম্ভব। কিন্তু সমস্যা হলো এটি ক্ষতিকর উদ্দেশ্যেও ব্যবহার করা হতে পারে আর তেমন ব্যবহারের ফলাফল হতে পারে ভয়াবহ।

শুধু ভুয়া সংবাদ নিয়েই নয়, এআই ব্যবস্থা ব্যবহার করে অনলাইন বা সামাজিক মাধ্যমে ভুল তথ্যযুক্ত পোস্ট ছড়ানো হতে পারে বা স্ক্যামিংও করা হতে পারে বলে সতর্ক করেছেন গবেষকরা।


ট্যাগ:  এআই  ওপেনএআই