২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

আইএসএস-এ নভোচারী পাঠালো রাশিয়া

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-07-21 15:57:44 BdST

bdnews24
ছবি- নাসা

আন্তর্জাতিক মহাকাশ কেন্দ্রের (আইএসএস) উদ্দেশ্যে তিন নভোচারী নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে রাশিয়ার সয়ুজ এমএস-১৩। পরিকল্পনা অনুযায়ী শনিবার কক্ষপথে প্রবেশ করে মহাকাশযানটি।

এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে রশকসমস-এর পক্ষ থেকে বলা হয়, স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ২৮ মিনিটে কাজাখাস্তানের বাইকোনুর কসমোড্রোম থেকে সয়ুজ-এফজি রকেট উৎক্ষেপণ করা হয়।

স্থানীয় সময় ৭টা ৩৭ মিনিটে রকেটের তৃতীয় স্তর থেকে আলাদা হয় নভোচারী বহনকারী মহাকাশযানটি। এখান থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আইএসএস-এ পৌঁছাবে এটি। আর রাশিয়ান মিশন কন্ট্রোল সেন্টারের বিশেষজ্ঞরা মহাকাশযানটি পর্যবেক্ষণ করবেন বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে আইএএনএস।

এবারে সয়ুজ এমএস-১৩ মহাকাশযানটিতে ছিলেন রশকসমস নভোচারী অ্যালেক্সান্ডার ভরসভ (কমান্ডার), ইতালির লুকা পারমিতানো (ফ্লাইট ইঞ্জিনিয়ার-১) এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যান্ড্রু মরগান (ফ্লাইট ইঞ্জিনিয়ার-২)।

মস্কোর সময় অনুযায়ী রোববার রাত ১টা ৫০ মিনিটে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আইএসএস পৌঁছে জোড়া লাগার কথা মহাকাশযানটি।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ কেন্দ্রে রশকসমস নভোচারী অ্যালেক্সেই অভচিনিন এবং নাসা নভোচারী নিক হগ ও ক্রিস্টিনা কচের সঙ্গে যোগ দেবেন নতুন তিন নভোচারী।

মার্কিন অ্যাপোলো ১১ মহাকাশযানের চাঁদে নামার ৫০ বর্ষপূর্তির দিন এই মিশন শুরু করেছে রশকসমস।

অ্যাপোলো ১১ মিশনের মাধ্যমেই চাঁদে প্রথমবারের মতো পা রাখে পৃথিবীর মানুষ। চাঁদে প্রথম পা রাখা কমান্ডার নিল আর্মস্ট্রং এটিকে বর্ণনা করেছেন, “মানুষের জন্য ছোট একটি পদক্ষেপ, মানবজাতির জন্য বিশাল একটি ধাপ।”