এবার ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের টুইট মুছে দিয়েছে টুইটার

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-31 13:57:31 BdST

bdnews24

করোনাভাইরাস নিয়ে এবার ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট  জাইর বোলসোনারো-এর দুটি টুইট মুছে দিয়েছে টুইটার। সংক্রমণ এড়াতে সামাজিক দূরত্ব ও কোয়ারেন্টিন মেনে চলা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন তিনি টুইটে।

করোনাভাইরাস সম্পর্কে ভুল তথ্য ছড়ানো প্রশ্নে টুইটার যে শক্ত অবস্থান নিচ্ছে, বিষয়টি সেদিকেই ইঙ্গিত করছে। তবে, কিছু রাজনীতিবিদের টুইট মুছবে না বলে আগেভাগেই জানিয়ে রেখেছে টুইটার। যদি কেউ করোনাভাইরাস সম্পর্কিত এমন কিছু শেয়ার করেন যা মানুষের স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর হবে, তাহলেই শুধু কঠোর অবস্থান নেবে মাইক্রোব্লগিং সাইটটি। সম্প্রতি বাজিলের প্রেসিডেন্টের টুইট মুছে দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এক টুইটার মুখপাত্র। -- খবর প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট সিনেটের।

“টুইটার সম্প্রতি নিজেদের নিয়মের পরিসর বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে, এটি এমন কনটেন্টের উপর বর্তাবে যা কোনো কর্তৃপক্ষের দেওয়া ভুল জনস্বাস্থ্য তথ্য এবং মানুষকে কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঝুঁকিতে ফেলতে পারে”। – বিবৃতিতে জানান টুইটার মুখপাত্র।

নিজের দুটি টুইটে জুড়ে দেওয়া ভিডিওতে সামাজিক দূরত্ব ও কোয়ারেন্টিনের বিপক্ষে কথা বলেছিলেন বোলসোনারো। বাজফিডের বরাত দিয়ে সিনেট জানিয়েছে, টুইটারের মুছে দেওয়া টুইটের ভিডিওতে তিনি বলেছিলেন, “আমি মানুষের কাছ থেকে শুনেছি যে তারা কাজ করতে চাইছে। ব্রাজিল থামতে পারবে না, নাহলে আমরা ভেনেজুয়েলায় পরিণত হবো”। আবার করোনাভাইরাস নিরাময়ে ম্যালেরিয়া ওষুধ হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের প্রশংসাও করেছিলেন তিনি।

টু্ইটগুলো মুছে দিয়ে সেখানে এখন নোটিশ ঝুলিয়ে রেখেছে টুইটার। ওই নোটিশে উল্লেখ রয়েছে, টুইটারের নীতিমালা লঙ্ঘন করেছে বোলজোনারোর অ্যাকাউন্ট।

ওই ভিডিওগুলো ফেইসবুকেও প্রকাশ করা হয়েছিল। টু্ইটারের পর ফেইসবুকও মুছে দিয়েছে সেগুলো। ফেইসবুক মুখপাত্র জানান, করোনাভাইরাস প্রতিষেধক নিয়ে ভুল তথ্য ছড়ানোয় ভিডিও মুছে দেওয়া হয়েছে। “কমিউনিটি মান লঙ্ঘনের জন্য আমরা ফেইসবুক ও ইন্সটাগ্রাম থেকে কনটেন্ট মুছে দিয়ে থাকি”- বলেছেন মুখপাত্র।

তবে, ভুল তথ্য টুইট করার দলে বোলসোনারো-ই প্রথম রাজনীতিবিদ নন। গত সপ্তাহে ভেনেজুয়েলার শাসক নিকোলাস মাদুরোর টুইটে-ও ভুল তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে মুছে দিয়েছিল টুইটার। আর শুক্রবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ব্যক্তিগত আইনজীবি ও নিউ ইয়র্কের সাবেক মেয়র রুডি জুলিয়ানির টুইট মুছে দেওয়া হয় ভুল তথ্য ছড়ানোর দায়ে।

তবে, বহাল তবিয়তে টুইটারে রয়ে গেছে ইলন মাস্কের টুইট। এক টুইটে তিনি দাবি করেন, শিশুরা কোভিড-১৯ সংক্রমণ থেকে মুক্ত। মাস্কের ওই দাবি আদতে সত্যি নয়। শিশুরাও সংক্রমিত হতে পারে প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে। টুইটারের ব্যাখ্যা হলো, সরাসরি মানুষের স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর হবে এমন ভুল তথ্য টুইটে না থাকায়, রেহাই পেয়ে গেছে টেসলা প্রধান নির্বাহীর ওই টুইট।