ভোটার তথ্য ফাঁসের ঘটনা তদন্তে ইন্দোনেশিয়া

  • প্রযুক্তি ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-23 02:38:37 BdST

bdnews24

একটি হ্যাকার ওয়েবসাইটে ২৩ লাখ ভোটারের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হওয়ার ঘটনা তদন্ত করছে ইন্দোনেশিয়ার নির্বাচন কমিশন। আরও প্রায় ২০ কোটি গ্রাহকের ডেটা ফাঁস করা হবে- এমন হুমকিও পেয়েছে বলে শুক্রবার জানিয়েছে সংস্থাটি।

গত বছর ইন্দোনেশিয়ার জাতীয় এবং আঞ্চলিক নির্বাচনে ভোট দেওয়ার যোগ্য ছিলেন ১৯ কোটি ২০ লাখের বেশি মানুষ। সে হিসাবে হ্যাকারের দাবি সঠিক হলে দেশটির সব ভোটারের তথ্যই বেহাত হয়েছে।

জনসংখ্যার হিসাবে বিশ্বে চতুর্থ দেশ ইন্দোনেশিয়া। বুধবার ‘রেইডফোরামস’ নামের একটি হ্যাকিং ফোরামে ফাঁস করা হয়েছে নির্বাচনী ডেটা।

বিশ্লেষকরা বলছেন, পরিচয় চুরি এবং জালিয়াতির কাজে ব্যবহার করা হতে পারে এই ডেটা-- খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

ফাঁস হওয়া ডেটার সত্যতা নিশ্চিত করেছে জেনারেল ইলেকশন কমিশন (কেপিইউ)। ফাঁস হওয়া তথ্যের মধ্যে রয়েছে বাড়ির ঠিকানা ও জাতীয় শনাক্তকারী নাম্বার। কিছু ডেটা ২০১৩ সালের বলেও নিশ্চিত করা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনারদের একজন ভিরান আজিজ রয়টার্সকে বলেন, “গত রাত থেকেই বিষয়টি খতিয়ে দেখছে কেপিইউ।”

কমিশনের সার্ভার থেকেই তথ্য ফাঁস হয়েছে এমন দাবি নাকচ করেছেন আজিজ। আইন অনুযায়ী একই ডেটা রাজনৈতিক দল এবং প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের সঙ্গে শেয়ার করা হয় বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ফোরামে নিজে পরিচয় গোপন করেই তথ্য ফাঁস করেছেন এক ব্যক্তি। অজ্ঞাতনামা ওই ব্যক্তি এমনটাও দাবি করেছেন যে, “আমার কাছে ইন্দোনেশিয়ার ২০ কোটির বেশি নাগরিকের তথ্য রয়েছে, যা আমি শীঘ্রই শেয়ার করবো।”


ট্যাগ:  সাইবার  ইন্দোনেশিয়া