চার ইউরোপীয় দেশের ৪জি নেটওয়ার্কে ‘শুধুই’ চীনা যন্ত্রাংশ

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-06-30 22:22:49 BdST

bdnews24
ছবি: রয়টার্স

বেলজিয়ামসহ চারটি ইউরোপীয় দেশের ৪জি মোবাইল নেটওয়ার্কের সব যন্ত্রাংশই চীনা প্রতিষ্ঠানের। এ ছাড়াও বড় অনেকগুলো দেশের অর্ধেকের বেশি যন্ত্রাংশ আসে চীন থেকে, মঙ্গলবার এমনটাই জানিয়েছে ড্যানিশ টেলিযোগাযোগ গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্ট্র্যান্ড কনসাল্ট।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চাইছে, সারা বিশ্বই যাতে নতুন প্রজন্মের ৫জি মোবাইল নেটওয়ার্কে হুয়াওয়েকে নিষিদ্ধ করে। চীনা সরকারের পক্ষে হুয়াওয়ে গুপ্তচরবৃত্তি করছে বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের এমন দাবি বারবারই অস্বীকার করেছে হুয়াওয়ে।

এদিকে স্ট্র্যান্ড বলছে, ৪জি মোবাইল রেডিও নেটওয়ার্কে শুধু চীনা যন্ত্রাংশ ব্যবহার করে বেলজিয়াম, মালটা, সাইপ্রাস এবং লিথুয়ানিয়া। এ ছাড়াও ৪জি নেটওয়ার্কের ক্ষেত্রে জার্মানিতে ৫৭ শতাংশ, স্পেন এবং ইতালিতে ৫০ শতাংশের বেশি, যুক্তরাজ্যে ৪০ শতাংশ এবং ফ্রান্সের ২৫ শতাংশ যন্ত্রাংশ আসে চীন থেকে-- খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

টেলিযোগাযোগ প্রতিষ্ঠানগুলো যখন তাদের ভেন্ডর উল্লেখ করে তখন সাধারণত বাজারে প্রতিষ্ঠানের দখল কতোটা, সে ডেটা উন্মুক্ত করে না তারা। সূত্রের সঙ্গে কথা বলে এবং ইউরোপ জুড়ে একশ’টির বেশি টেলিযোগযোগ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে এই তথ্য গণনা করেছে স্ট্র্যান্ড।

স্ট্র্যান্ড বলছে, প্রযুক্তি যখন ৫জি’র দিকে এগোচ্ছে ৪জি নেটওয়ার্কের প্রায় সব যন্ত্রাংশই বদলাতে হবে অপারেটরদেরকে। ধারণা করা হচ্ছে, ইউরোপে চীনা যন্ত্রাংশগুলো বদলাতে বাড়তি খরচ হবে সাড়ে তিনশ’ কোটি মার্কিন ডলার।

“খরচের এই অঙ্কটি পুরো ইউরোপে ১৪ মাস ধরে রেডিও নেটওয়ার্ক যন্ত্রাংশ কিনলে যে পরিমাণ খরচ হয় তার সমান, যা ইউরোপ এবং বিশ্বের জন্য ক্ষুদ্র অংশ”-- বলছে স্ট্র্যান্ড।

মোবাইল টেলিযোগাযোগ যন্ত্রাংশ বাজারে হুয়াওয়ের মূল দুই প্রতিদ্বন্দ্বী এরিকসন এবং নোকিয়া।


ট্যাগ:  ইউরোপ  চীন