স্ন্যাপড্রাগন চিপে চারশ’ ত্রুটি, গুপ্তচরবৃত্তির শঙ্কা

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-08-10 20:06:01 BdST

bdnews24
কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন সিরিজের একটি চিপ। ছবি: কোয়ালকম

কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগনের ডিজিটাল সিগনাল প্রসেসর (ডিএসপি) চিপে চারশ’ ত্রুটি বের করেছেন গবেষণা প্রতিষ্ঠান চেক পয়েন্টের গবেষকরা। ত্রুটি কাজে লাগিয়ে হ্যাকাররা গ্রাহকের ছবি, ভিডিও, কলিং এবং জিপিএস ডেটার ওপর গুপ্তচরবৃত্তি চালাতে পারবেন, এমন শঙ্কার কথাও জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিবেদনে ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড মিরর বলছে, বিশ্বের ৪০ শতাংশের বেশি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে এই চিপ ব্যবহার করে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো-- গুগল, স্যামসাং, এলজি, শাওমি এবং ওয়ানপ্লাসসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান।

চিপের এই ত্রুটি কাজে লাগিয়ে ডিভাইস অকেজো বা বিপজ্জনক ম্যালওয়্যার ইনস্টল করা সম্ভব বলেও জানিয়েছে চেক পয়েন্ট।

গবেষকরা বলছেন, এই ত্রুটির সুযোগ নিতে ব্যবহারকারীকে শুধু একটি অ্যাপ ইনস্টলের প্রলোভন দেখাতে হবে।

ইতোমধ্যেই এই ত্রুটি সারিয়েছে কোয়ালকম।

মিরর অনলাইনকে কোয়ালকমের এক মুখপাত্র বলেন, “জোরালো নিরাপত্তা এবং গোপনতা সমর্থন রয়েছে এমন প্রযুক্তিই কোয়ালকমের প্রাধান্য। কোয়ালকম কম্পিউট ডিএসপি ত্রুটি, যা চেক পয়েন্ট বের করেছে, তা সমাধানে আমরা নীবিড়ভাবে কাজ করেছি।

“এটির সুযোগ নেওয়া হয়েছে এখনও এমন কোনো প্রমাণ নেই। আমরা গ্রাহককে তার ডিভাইস আপডেট করতে উদ্বুদ্ধ করছি এবং গুগল প্লে স্টোরের মতো বিশ্বাসযোগ্য স্থান থেকেই শুধু অ্যাপ ইনস্টল করতে বলছি।”

এদিকে চেক পয়েন্টের সাইবার গবেষণা বিভাগের প্রধান ইয়ানিভ বালমাস বলেন, “কোটি কোটি ফোন নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে। আপনার ওপর গুপ্তচরবৃত্তি হতে পারে। আপনার ডেটাও হারাতে পারে।”

“সৌভাগ্যজনকভাবে আমরা এই ত্রুটিগুলো ধরতে পেরেছি। কিন্তু আমাদের ধারণা এগুলো পুরোপুরি সারাতে কয়েক মাস বা বছর সময় লাগবে।”

“যদি এ ধরনের ত্রুটি পাওয়া যায় এবং সেটি যদি ক্ষতিকর কোনো ব্যক্তি ব্যবহার করেন, কোটি কোটি মোবাইল ব্যবহারকারীর কাছে লম্বা সময়ের জন্য নিজেদেরকে রক্ষার জন্য প্রায় কোনো উপায়ই থাকবে না” যোগ করেন বালমাস।