পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

এআরএমের প্রধান কার্যালয় যুক্তরাজ্যেই চান লেবার পার্টি নেতা

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-09-13 22:21:19 BdST

bdnews24
ছবি: রয়টার্স

চিপ নকশা প্রতিষ্ঠান এআরএম-এর প্রধান কার্যালয় যাতে যুক্তরাজ্যেই থাকে, তা নিশ্চিত করতে যুক্তরাজ্য সরকারকে পদক্ষেপ নিতে হবে – বলেছেন দেশটির রাজনৈতিক দল লেবার পার্টির সাবেক প্রধান।

কেমব্রিজভিত্তিক এআরএম কে ২০১৬ সালেই কিনে নিয়েছিল জাপানি প্রতিষ্ঠান সফটব্যাংক। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটিকে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক চিপ নির্মাতা এনভিডিয়ার কাছে বিক্রি করে দেওয়া নিয়ে আলোচনা চলছে।

প্রতিবেদনে বিবিসি জানিয়েছে, লেবার পার্টির সাবেক প্রধান এড মিলিব্যান্ড বলেছেন, সরকারের উচিত হবে এআরএমের অবস্থানের ব্যাপারে “আইনি নিশ্চয়তা” নেওয়া। যুক্তরাজ্য সরকারের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, দেশের জন্য হুমকি হতে পারে এমন মালিকানা হাতবদলের ব্যাপারে তদন্ত করা হবে।

এআরএম মূলত কম্পিউটার চিপের নকশা তৈরি করে। পরে তা অন্যান্য প্রতিষ্ঠান নিজস্ব চাহিদা অনুসারে পরিবর্তন করে নেয়। নির্দেশনা সেটও তৈরি করে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। সফটওয়্যার কীভাবে প্রসেসর নিয়ন্ত্রণ করবে, তা ঠিক করে দেয় এ ধরনের নির্দেশনা সেট।

জাপানের সফটব্যাংক ২০১৬ সালে দুই হাজার চারশ’ ৩০ কোটি পাউন্ডের বিনিময়ে কিনে নিয়েছিল এএআরএম’কে। এখন মার্কিন চিপ নির্মাতা এনভিডিয়ার সঙ্গে আলোচনা চলছে সফটব্যাংকের। হয়তো খুব শীঘ্রই এআরএম-এর নতুন মালিক হবে এনভিডিয়া।

“সরকারের উচিত হবে নেতৃত্ব দেখানো এবং এনভিডিয়ার কাছ থেকে আইনি নিশ্চয়তা নেওয়া যে প্রতিষ্ঠানটির দায়িত্ব নিলেও এআরএমের প্রধান কার্যালয় যুক্তরাজ্যেই থাকবে, চাকরি এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণ সাগরের ওপারে পাড়ি জমাবে না।” – এক বিবৃতিতে বলেছেন এড মিলিব্যান্ড।

এআরএমের সহ-প্রতিষ্ঠাতা টুডোর ব্রাউনের পরামর্শ হচ্ছে, এআরএমকে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের নিরপেক্ষ সরবরাহকারী হিসেবেই রাখা। প্রতিষ্ঠানটিতে ২৯ বছর কাজ করেছেন ব্রাউন।