ট্রেসিং অ্যাপ বিভ্রাট: রোগী সুস্থ হলেও ‘শুনছে না’ ব্রিটিশ অ্যাপ

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-09-27 18:25:16 BdST

bdnews24
ছবি- আইল অফ ওয়াইটে একজন এনএইচএস কর্মী দেখাচ্ছেন ডাউনলোড করা অ্যাপ। ছবি: রয়টার্স।

সমস্যায় পড়েছেন যুক্তরাজ্য এবং ওয়েলসের এনএইচএস করোনাভাইরাস অ্যাপ ব্যবহারকারীরা।

অ্যাপের মাধ্যমে ‘বুক’ করা হয়নি এমন করোনাভাইরাস পরীক্ষায় ফলাফল ‘পজিটিভ’ এলেও, তা অ্যাপ রেকর্ডে যোগ করতে পারছিলেন না ভুক্তভোগীরা।

পরে যুক্তরাজ্য সরকার ওই সমস্যার সমাধান করেছে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পরীক্ষা যেভাবেই করা হোক না কেন, ফলাফল ‘পজিটিভ’ এলে তা অ্যাপের রেকর্ডে যোগ করতে পারবেন সবাই।

যুক্তরাজ্য সরকার বলছে, অ্যাপের মাধ্যমে করোনাভাইরাস পরীক্ষা ‘বুক’ করলে, সে পরীক্ষার ফলাফল স্বয়ংক্রিয়ভাবে অ্যাপের রেকর্ডে যোগ হয়ে যায়।

বিবিসি জানিয়েছে, এখন নতুন করে আরেক সমস্যা দেখা দিয়েছে। পজিটিভ ফলাফল রেকর্ড করা সম্ভব হলেও, করোনাভাইরাস পরীক্ষায় ফলাফল ‘নেগেটিভ’ এলে সেটিকে আর অ্যাপের রেকর্ডে যোগ করতে পারছেন না ব্যবহারকারীরা।

শনিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক ঘোষণায় জানিয়েছে, যদি অন্য কোথাও পরীক্ষায় ফলাফল পজিটিভ আসে, তাহলে তাদেরকে একটি কোড দেওয়া হবে। অ্যাপে ওই কোড লিখলেই ‘আইসোলেশনের কাউন্টডাউন’ শুরু হয়ে যাবে।

কোডটি শুধু ‘পজিটিভ’ রেজাল্টধারীদের জন্য হওয়াতেই নতুন সমস্যাটি দেখা দিয়েছে। করোনাভাইরাস উপসর্গের ব্যাপারে যারা অ্যাপে তথ্য দিচ্ছেন, তাদের বেলাতেও কাউন্টডাউন শুরু হয়ে যাচ্ছে। পরে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফলাফল ‘নেগেটিভ’ এলেও ওই কাউন্টডাউন থামানো সম্ভব হচ্ছে না।

কারণ, ফলাফল যে নেগেটিভ এসেছে, তা অ্যাপকে ‘জানানোর’ জন্য কোনো কোড রাখা হয়নি। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, এ ব্যাপারটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ডেবোরাহ রায়ান বলেছেন, “এটি খুবই বিভ্রান্তিকর, কারণ বাইরের কোনো পরীক্ষায় ফলাফল নেগেটিভ এলে তা অ্যাপে রেকর্ড করা সম্ভব হচ্ছে না। উপসর্গ দেওয়ার পরেও অ্যাপ আপনাকে কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলছে। তার মানে, আমি অ্যাপের সেলফ-আইসোলেশন অ্যালার্ট বন্ধ করতে পারছি না।”

যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, করোনাভাইরাস অ্যাপ ব্যবহার “পুরোপুরি ঐচ্ছিক”। জোর করে পরীক্ষা বা সেলফ আইসোলেশন চাপিয়ে দেওয়া যাবে না।

ডেটা বিশ্লেষক অ্যাপ অ্যানির তথ্য অনুসারে, এনএইচএস কোভিড-১৯ অ্যাপ এ পর্যন্ত ৪০ লাখ বার ডাউনলোড হয়েছে।


ট্যাগ:  এনএইচএস  করোনাভাইরাস