পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

দুই বছরে গিয়ে ঠেকতে পারে চিপ ঘাটতি: ইনটেল প্রধান

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-29 21:03:39 BdST

bdnews24
প্যাট্রিক গেলসিঙ্গার। ছবি: ইনটেল

বৈশ্বিক প্রযুক্তি বাজারে চলছে চিপ ঘাটতি। প্রযুক্তি বাজারে এর প্রভাব আরও জোরেসোরে টের পাওয়া যাবে চলতি বছরের দ্বিতীয় ভাগে-- সতর্ক করে দিয়েছেন ইনটেল প্রধান।

শুধু চলতি বছরই নয়, প্রযুক্তি বাজারে এই চিপ ঘাটতি আরও বছর দুয়েক থাকতে পারে বলে বিবিসিকে জানিয়েছেন ইনটেলের প্রধান নির্বাহী প্যাট্রিক গেলসিঙ্গার।

বৈশ্বিক এই চিপ ঘাটতির পেছনের কারণ কয়েকটি। মহামারীর কারণে উৎপাদন ও সরবরাহ ব্যবস্থায় অস্থিতিশীলতা, লকডাউন চলাকালে ডিভাইসের ঊর্ধ্বমুখী চাহিদা, যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি-- এই সব মিলিয়ে বাজারে একটি ‘বড় শূন্যস্থান’ তৈরি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

“চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক এখন বেশ খারাপ- আর এই দ্বন্দ্বের ভুক্তভোগী হচ্ছে পুরো (প্রযুক্তি) শিল্প”।

চীনের সঙ্গে সম্পর্ক ‘স্বাভাবিক’ করার উপর জোর দিচ্ছেন গেলসিঙ্গার। চিপ ঘাটতি সমাধানে নতুন কারখানা নির্মাণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে বিবিসি-কে জানিয়েছেন তিনি।

ইনটেল যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে সেমি-কন্ডাক্টর তৈরির নতুন কারখানা নির্মাণ নিয়ে ঘোষণা দেবে চলতি বছরের শেষের দিকে। তবে উৎপাদন, চাহিদা ও সরবরাহের মধ্যে সামঞ্জস্য আনতে “আরও এক থেকে দুই বছর” সময় লাগবে বলে বিবিসিকে জানিয়েছেন গেলসিঙ্গার।

ইনটেলের ২৫ শতাংশ আয় আসে চীন থেকে। চীনের এই “অতৃপ্ত প্রযুক্তি তৃষ্ণা তাদের অর্থনীতি প্রযুক্তি নির্ভর করতে সাহায্য করছে” বলে মন্তব্য করেছেন গেলসিঙ্গার।

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে ইনটেল “যতোটা সম্ভব প্রভাবশালী ভূমিকা” রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।

“চীনের সঙ্গে ব্যবসা চালিয়ে যেতে হবে আমাদের। আমরা যদি সেটা না করি, তারা স্থানীয় বিকল্প খুঁজতে বাধ্য হবে।”

তবে ট্রাম্প সরকারের আমলে ভেঙ্গে পড়া ইউরোপীয় সম্পর্কগুলো পুনরুদ্ধারের আশাও করছেন তিনি।

“আমরা বাইডেন সরকারকে এটাও জানিয়েছি যে আমরা যারা ইউরোপে আছি, তাদের জন্য আগের ব্যবস্থাপনায় ক্ষতিগ্রস্থ সম্পর্কগুলো পুনরুদ্ধারের জন্য কতো বড় সুযোগ এটি”।

অন্যদিকে, আরও শক্তিশালী কিন্তু আকারে ছোট চিপ নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়ে ২০২৫ সাল পর্যন্ত নিজেদের রোডম্যাপ ঘোষণা করেছে ইনটেল। একই সঙ্গে ন্যানোমিটার ভিত্তিক নামকরণ প্রথা থেকে সরে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। বাজারের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানের পণ্যের সঙ্গে নামবিভ্রাট এড়াতে এই পদক্ষেপ নিচ্ছে ইনটেল।

ইনটেলের বর্তমান চিপগুলোর বর্ণনা দেওয়া হচ্ছে ১০এনএম (ন্যানোমিটার) হিসেবে। এর পরের প্রজন্মেরগুলো হবে ৭এনএম (ন্যানোমিটার)। আগামীতে এই ৭এনএম চিপগুলোর নামকরণ করা হবে ইনটেল ৪। ২০২৪ সাল নাগাদ বাজারে আসার কথা রয়েছে ইনটেল ২০এ চিপের, শুরুতে যার নামকরণ করা হয়েছিলো ইনটেল ৫এনএম। ইনটেল ৭এনএম বা ইনটেল ৪ চিপগুলোর বাজারে আসবে ২০২২ সালে।