পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ডোজকয়েন বিভ্রাটে বাইন্যান্স সিইও-কে এক হাত নিলেন মাস্ক

  • প্রযুক্তি ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-11-24 14:56:21 BdST

bdnews24
ছবি: রয়টার্স

ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ বাইন্যান্সের প্রধান নির্বাহী চ্যাংপেং ঝাও-কে টুইটারে এক হাত নিয়েছেন টেসলা প্রধান ইলন মাস্ক। ডোজকয়েন ওয়ালেট থেকে উত্তোলন প্রক্রিয়া সাময়িকভাবে বন্ধ থাকায় বেশ কড়া ভাষাতেই বাইন্যান্সকে খোঁচা দিয়েছেন ক্রিপ্টোমুদ্রার এই প্রথম সারির সমর্থক।

চলতি বছরে বেশ বড় রকমের উত্থান-পতন হয়েছে ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারে। রয়টার্স বলছে, অনেক ক্ষেত্রেই মাস্কের টুইটে প্রভাবিত হয়েছে ডিজিটাল মুদ্রার বাজার। বিশেষ করে ডোজকয়েন নিয়ে মাস্কের বক্তব্যের জেরে রাতারাতি জনপ্রিয়তা ও চাহিদা বেড়েছে ডিজিটাল মুদ্রাটির।

সর্বশেষ বাইন্যান্স সিইও-কে উদ্দেশ্য করে মাস্ক মঙ্গলবার টুইট করেছেন, “তোমার ডোজ ক্রেতাদের নিয়ে কী হচ্ছে? সন্দেজহনক মনে হচ্ছে”।

উত্তরে বাইন্যান্স জানিয়েছে, তারা ডোজকয়েন ওয়ালেট নতুন করে তৈরি করছে। এ কারণেই ওয়ালেট থেকে কয়েন উত্তোলন করতে পারছেন না ক্রেতারা এবং এই পরিস্থিতি আরও সপ্তাহখানেক চলতে পারে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

লেনদেনের হিসাবে বাইন্যান্স বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জগুলোর একটি। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি নীতিনির্ধারক ও বাজার নিয়ন্ত্রকদের সমালোচনার মুখে পড়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

তবে কেবল বাইন্যান্স যে নীতিনির্ধারকদের ‘চক্ষুশূল’ হয়ে দাঁড়িয়েছে, এমন নয়। পুরো বিশ্বেই বাজার নিয়ন্ত্রক ও নীতিনির্ধারকদেন জন্য মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ডিজিটাল মুদ্রাগুলো। দামের ওঠা নামার সুযোগ নিয়ে বড় মুনাফা লাভের আশায় বিনিয়োগকারীদের হুড়োহুড়িতে আরও অস্থিতিশীল হয়েছে এই বাজার।

রয়টার্স বলছে, বৈশ্বিক নীতিনির্ধারকদের আশঙ্কা ব্যক্তিমালিকানাধীন ক্রিপ্টোকারেন্সির ব্যবহার বাড়লে বৈশ্বিক আর্থিক ও লেনদেন ব্যবস্থার উপর নিয়ন্ত্রণ হারাতে পারেন তারা। আর্থিক অপরাধ এবং বিনিয়োহকারীদের ক্ষতির আশঙ্কাও করছেন তারা।