২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৫

প্রথম দর্শনে উইন্ডোজ ১০

  • শরীফুল হক আনন্দ, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2014-10-07 13:06:19 BdST

bdnews24

উইন্ডোজ ৮-এর পর মাইক্রোসফট এবার নিয়ে আসছে উইন্ডোজ ১০- খবরটা তেমন পুরানো নয়।

উইন্ডোজ কম্পিউটারে অপারেটিং সিস্টেম পুরোপুরি পাল্টে দেবে উইন্ডোজ ১০ এমনটাই ভাবছে মাইক্রোসফট। উইন্ডোজ ৮ থেকেও বেশি কার্যকর ফিচার নাকি আছে উইন্ডোজ ১০-এ। ব্যবহারকারীরা পুরানো অপারেটিং সিস্টেমের অনেক সেবাও পাবেন এতে।

উইন্ডোজ ৮ ব্যবহারে নানা জটিলতার জন্য ব্যবহারকারীদের বেশ ভালোই ঝামেলা পোহাতে হয়েছিল বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান। এমনকি মাইক্রোসফটের লাভের খাতাতেও উইন্ডোজ ৮ খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি। তবে উইন্ডোজ ১০ নিয়ে মাইক্রোসফট বেশ আশাবাদী। পুরানো উইন্ডোজ ৭, উইন্ডোজ ভিসতা এমনকি মেয়াদোত্তীর্ণ উইন্ডোজ এক্সপি ব্যবহার বন্ধ করে সবাই উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করবে এমনটাই আশা করছেন মাইক্রোসফটের কর্তাব্যক্তিরা।

প্রথম দেখায় উইন্ডোজ ১০-এর উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচারের ব্যাপারে জানিয়েছে দ্য গার্ডিয়ান।

স্টার্ট মেনু

উইন্ডোজ ৮-এ ‘নিখোঁজ’ হওয়া স্টার্ট বাটন ফিরেছে উইন্ডোজ ১০-এ। স্টার্ট বাটন ক্লিক করার মাধ্যমেই ব্যবহারকারীরা আগের মতই স্টার্ট মেনুতে ঢুকতে পারবেন। উইন্ডোজের আগের ভার্সনগুলোর মতো স্টার্ট মেনু অপশনটি ব্যবহারকারীর কাজ অনেকটা সহজ করে দেবে। ডেস্কটপ পিসি ব্যবহারকারীরা এই অপশন থেকেই বেশি সুবিধা পাবেন।

কন্টিনাম

উইন্ডোজ ৭ আর উইন্ডোজ ৮-এর সেরা ফিচারগুলো একসঙ্গে উইন্ডোজ ১০-এ নিয়ে এসেছে মাইক্রোসফট। উইন্ডোজ ১০-এর কন্টিনাম ফিচারটি কম্পিউটার ব্যবহারের সময় কিবোর্ড, মাউস নাকি স্ক্রিন ব্যবহার করা হচ্ছে সেটা চিহ্নিত করে যথাযথ ইন্টারফেইস নিয়ে আসবে।

সব ডিভাইসের জন্য এক অ্যাকাউন্ট

উইন্ডোজ ১০-এ একই ইন্টারফেইস ব্যবহার করে একসঙ্গে ডেস্কটপ কম্পিউটার, উইন্ডোজ ট্যাবলেট এবং উইন্ডোজ স্মার্টফোন ব্যবহার করা যাবে। প্রয়োজন নেই একাধিক অ্যাকাউন্টের।

ইউনিভার্সাল অ্যাপস

সব ডিভাইসের জন্য এক উইন্ডোজের একই ভিত্তিতে আসছে ‘ইউনিভার্সাল অ্যাপস’ ফিচারটি। এই ফিচারে উইন্ডোজ স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যে কোনো অ্যাপ একইসঙ্গে সবগুলো ডিভাইসেই চলবে।

আলাদা উইন্ডোতে ইউনিভার্সাল অ্যাপ

ইউনিভার্সাল অ্যাপগুলো চালানো যাবে আলাদা আলাদা উইন্ডোতে। উইন্ডোজ ৮-এর ‘মডার্ন’ অ্যাপের সঙ্গে প্রচলিত উইন্ডোজের অনুভূতির সংশ্রিশন ঘটানোর চেষ্টাও করেছে মাইক্রোসফট। 

স্ন্যাপ অ্যাসিস্ট

পরিবর্তন আনা হয়েছে উইন্ডোজের স্ন্যাপিং ফিচারেও। স্ক্রিনের পুরোটা জুড়ে রাখার জন্য উইন্ডোগুলোকে স্বয়ংক্রিয় ভাবে রিসাইজ করবে এই ফিচারটি।

চালানো সম্ভব কোন কোন ডিভাইসে?

উইন্ডোজ ৮ ব্যবহার করা যেত এমন প্রায় সব ডিভাইসেই চলবে উইন্ডোজ ১০।  ৬৪-বিট প্রসেসর লাগবে উইন্ডোজ ১০-এর জন্য। ফলে পুরানো পিসিগুলোতে চলবে না নতুন উইন্ডোজ।

আসছে কবে? আর দামটা?

মঙ্গলবার উইন্ডোজ ১০ উন্মোচন করলেও ২০১৫ সালের আগে বাজারে আসছে নতুন অপারেটিং সিস্টেমটি। তবে আগ্রহী ক্রেতাদের জন্য পরীক্ষামূলক পর্যায়ে থাকা সফটওয়্যারটির প্রিভিউ ব্যবহারের জন্য সাইন-আপের সুযোগ রাখছে মাইক্রোসফট।

উইন্ডোজ ১০-এর বাণিজ্যিক ভার্সনের দাম কতো হবে তা জানায়নি মাইক্রোসফট।    উইন্ডোজ ৮.১-এর খুচরা মূল্য ছিল ১০০ ডলার। উইন্ডোজ ১০-এর ক্ষেত্রে মাইক্রোসফট মূল্যছাড় বেবে বলে আশা প্রকাশ করেছে দ্য গার্ডিয়ান।