২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫

পারস্য উপসাগরে ইরানের নৌ মহড়া শুরু

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-02-22 15:34:59 BdST

bdnews24

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাড়তে থাকা উত্তেজনার মধ্যেই পারস্য উপসাগরে তিনদিনের নৌ মহড়া করছে ইরান।

শুক্রবার শুরু হওয়া এ মহড়ায় দেশটি প্রথমবারের মতো সাবমেরিন থেকে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

হরমুজ প্রণালী থেকে আরব সাগর পর্যন্ত প্রসারিত এ মহড়ায় শতাধিক নৌযান অংশ নিচ্ছে বলে ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইরনার বরাত দিয়ে জানিয়েছে রয়টার্স।

“নানামাত্রিক হুমকি মোকাবেলার লক্ষ্যে এ মহড়াটি হচ্ছে। এখানে সেনাসদস্যদের পাশাপাশি অস্ত্র ও সরঞ্জামের পরীক্ষা, সেগুলোর কার্যকারিতা ও প্রস্তুতি দেখা হবে। সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করা হবে এর পাশাপাশি সাহান্দ যুদ্ধজাহাজ থেকে হেলিকপ্টার ও ড্রোন ওড়ানো হবে,” ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে এমনটাই বলেছেন নৌ কমান্ডার রিয়ার এডমিরাল হোসেইন খানহাদি।

নিজেদের বানানো নতুন ডুবোজাহাজ ফাতেহ-কে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পাশাপাশি সেখান থেকে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের প্রক্রিয়া এবারের মহড়ায় বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে।

ওয়াশিংটনের সঙ্গে তেহরানের পাল্টাপাল্টি উত্তেজনার মধ্যে হরমুজে এ নৌ মহড়ায় নজর রাখছেন পশ্চিমা বিশ্লেষকরাও।

যুক্তরাষ্ট্র তেল রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দিলে বা অন্য কোনো ধরনের শত্রুতামূলক আচরণ করলে এ প্রণালীটি বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেও ইরানের হুঁশিয়ারি আছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তেহরান তাদের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচিও বিস্তৃত করেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরেই ইরান তাদের নিজেদের বানানো সাহান্দ যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন করে; দীর্ঘদিনের অনুপস্থিতি কাটিয়ে একই মাসে পারস্য উপসাগরে প্রবেশ করে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস জন সি স্ট্যানিস।

ইসলামি বিপ্লবের চার দশক পূর্তি উপলক্ষে এ মাসের শুরুতে ইরান এক হাজার ৩০০ কিলোমিটার পাল্লার নতুন একটি ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রও উন্মুক্ত করেছে।