২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

হংকংয়ে আবার বিক্ষোভ, পুলিশের টিয়ার গ্যাস

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-07-21 21:55:11 BdST

bdnews24

হংকংয়ে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে আবারো রাস্তায় বিক্ষোভে নেমেছে গণতন্ত্রপন্থি বিক্ষোভকারীরা। পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষও হয়েছে। বিক্ষোভ থামাতে পুলিশ রাবার বুলেট এবং টিয়ার গ্যাস ছুড়েছে।

চীনে বন্দি প্রত্যর্পণ নিয়ে প্রস্তাবিত একটি বিলের বিপক্ষে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে হংকংয়ে বিক্ষোভ চলছে।

বিক্ষোভের মুখে হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম বিলটি ‘মৃত’ ঘোষণা করলেও বিক্ষোভ থামেনি। বরং বিতর্কিত বিল বাতিল নিয়ে শুরু হওয়া আন্দোলন এখন হংকংয়ের স্বাধীনতার আন্দোলনে পরিণত হয়েছে।

১৯৯৭ সালে ব্রিটিশদের থেকে চীনের কাছে হস্তান্তরের পর হংকংয়ের ইতিহাসে এটিই সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ।

চীনের কাছে হস্তান্তরের সময় যুক্তরাজ্য শহরটির স্বায়ত্ত্বশাসন ও স্বাধীনতা এবং স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা অটুট রাখার প্রতিশ্রুতি আদায় করে নিয়েছিল।

হংকংয়ের জন্য চীন ‘এক দেশ, দুই ব্যবস্থাপনার’ নীতি নিয়েছে। কিন্তু যুক্তরাজ্যকে প্রতিশ্রুতি দিলেও নিজেদের ভূখণ্ডভুক্ত হওয়ার পর থেকেই বেইজিং হংকংয়ের গণতান্ত্রিক সংস্কারে বাধা, স্থানীয় নির্বাচনে হস্তক্ষেপ ও বিরোধীদের ওপর তুমুল দমন-নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ সমালোচকদের।

চীন শুরু থেকেই এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। বিবিসি জানায়, রোববার বিক্ষোভকারীরা চীনের কেন্দ্রীয় সরকার ভবনের চারপাশে দেওয়া সুরক্ষা রেখা অতিক্রম করে ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করলে নিরাপত্তা পুলিশের সঙ্গে তাদের ধাক্কধাক্কি ও হাতাহাতি হয়। এছাড়া, দিনের শুরুতে বিক্ষোভকারীরা ওই ভবনের দিকে ডিম ছুড়ে।

বিক্ষোভকারীদের হাতে এ সময় নানা স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড ধরা ছিল। একটি প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, “তোমরা আমাদের কী ভেবেছ, শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কার্যকর নয়?’

ওদিকে, রোববারের এ বিক্ষোভের আগে শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ১০টার দিকে সুয়েন ওয়ান শিল্প এলাকার একটি কারখানা ভবনে পুলিশ কর্মকর্তারা বিস্ফোরকের মজুদ খুঁজে পায় বলে খবর দিয়েছিল বিবিসি।

রোববার শুধু হংকং সরকারের বিপক্ষে নয় বরং পক্ষেও মিছিল হয়েছে।