ফের চালু হয়েছে হংকং বিমানবন্দর

  • নিউজ ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-08-14 15:22:18 BdST

bdnews24

দাঙ্গা পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষের সময় থেকে সারারাত ধরে বিশৃঙ্খলা চলার পর হংকং বিমানবন্দরের কার্যক্রম ফের শুরু হয়েছে।

বিক্ষোভকারীরা বিমানবন্দরের টার্মিনাল ভবনে অবস্থান নেওয়ার পর মঙ্গলবার বিমানবন্দরটির কর্তৃপক্ষ কয়েকশ বিমানসূচী বাতিল করতে বাধ্য হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বুধবার ভোররাত থেকে সূচী আনুযায়ী ফ্লাইট চলাচল ফের শুরু হয়, তবে এরপরও কিছু বিমানসূচী বাতিল ও কয়েকটি ফ্লাইটের উড্ডয়নে বিলম্ব হয়।

এ দিন কয়েক ডজন বিক্ষোভকারী বিমানবন্দরে রয়ে গেলেও কর্মীরা বিমানবন্দর পরিষ্কার করার কাজ শুরু করে দেন। চেক-ইন কাউন্টারগুলো খোলার পর নিজেদের ফ্লাইটের জন্য রাতভর অপেক্ষমাণ কয়েকশত যাত্রী সেখানে লাইন ধরেন।

কয়েকদিন ধরে বিমানবন্দরের কার্যক্রমে বিঘ্ন চলার পর কর্তৃপক্ষ নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় বিক্ষোভকারীদের প্রবেশের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। 

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের নির্দিষ্ট করে দেওয়া এলাকা ছাড়া বিমানবন্দরের অন্য কোথাও বিক্ষোভ বা প্রতিবাদে যোগ দেওয়ার থেকে লোকজনকে বিরত থাকতে বলেছে কর্তৃপক্ষ।  

টার্মিনাল এলাকায় প্রবেশের বিষয়ে বিধিনিষেধ আরোপ করে অতিরিক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। শুধু কর্মী ও বৈধ বোর্ডিং পাসধারী যাত্রীদেরই শুধু সেখানে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে।

বিশ্বের অন্যতম ব্যস্ত এই বিমানবন্দরে গত শুক্রবার থেকে প্রতিদিনই বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থি বিক্ষোভকারীরা। সেগুলোর অধিকাংশই শান্তিপূর্ণ হলেও মঙ্গলবার বিক্ষোভকারীরা ভ্রমণকারীদের ফ্লাইটে উঠতে বাধা দেয়। লাগেজ ট্রলি ও অন্যান্য জিনিস ব্যবহার করে রাস্তা বন্ধ করে রাখে, ফাঁকা জায়গাগুলোতে নিজেরা বসে পড়ে। 

এ সময় ছদ্মবেশী পুলিশ কর্মকর্তা মনে করে বিক্ষোভকারীরা এক ব্যক্তিকে আটক করলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। লাঠি হাতে দাঙ্গা পুলিশ বিমানবন্দরে প্রবেশ করলে বিক্ষোভাকারীদের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ শুরু হয়।

এখান থেকে পুলিশ পাঁচ বিক্ষোভকারীকে আটক করে। এদের নিয়ে জুনে গণতন্ত্রপন্থিদের বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত আটকের সংখ্যা ৬০০ জন ছাড়িয়ে গেছে।

বিমানবন্দরে সহিংসতার নিন্দা করে এর জন্য যারা দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে হংকং সরকার।

চীনের হংকং বিষয়ক দপ্তর বুধবার বিমানবন্দরে সহিংসতার নিন্দা করে একে ‘প্রায় সন্ত্রাসী কার্যক্রম’ বলে অভিহিত করেছে।

চীনে বন্দি প্রত্যর্পণ নিয়ে দুই মাস আগে প্রস্তাবিত একটি বিল বাতিলের দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠা হংকংয়ের বিক্ষোভ এখন স্বাধীনতা আন্দোলনের রূপ নিয়েছে। বিক্ষোভের মুখে প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম ওই বিলকে ‘মৃত’ ঘোষণার পরও আন্দোলন থামছে না।

বিক্ষোভকারীরা বিলটি পুরোপুরি বাতিল, পুলিশী নিপীড়নের বিরুদ্ধে স্বাধীন তদন্ত এবং ক্যারি লামের পদত্যাগ দাবি করছে।