২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

পাকিস্তানে স্বাধীনতা দিবসে 'কাশ্মীর সৌহার্দ্য দিবস' পালন

  • >> রয়টার্স
    Published: 2019-08-14 18:26:11 BdST

bdnews24

পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসকে এবার 'কাশ্মীর সৌহার্দ্য দিবস' হিসেবে পালন করেছে সরকার। এ দিনের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতের কাশ্মীর সিদ্ধান্তের সমালোচনা করার পাশাপাশি কাশ্মীরিদের প্রতি সংহতি প্রকাশ করেছেন।

গত ৫ অগাস্ট ভারত সরকার জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে দেওয়ার পরই এর প্রতিবাদে পাকিস্তান তাদের স্বাধীনতা দিবসকে কাশ্মীরিদের সঙ্গে একাত্ম হয়ে পালনের সিদ্ধান্ত নেয়। ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য এবং রেল যোগাযোগও ছিন্ন করে পাকিস্তান।

১৪ অগাস্ট পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী ইমরান এক বিবৃতিতে বলেছেন, “স্বাধীনতা দিবস অনেক বড় একটি খুশির দিন। কিন্তু আজ আমরা অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরে আমাদের কাশ্মীরি ভাইদের দুর্দশার জন্য দুঃখভারাক্রান্ত। তারা ভারতের নিপীড়নের শিকার।”

“আমি কাশ্মীরি ভাইদের আশ্বস্ত করে বলছি আমরা তাদের সঙ্গে আছি,” বলেন তিনি। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ইমরান খান বুধবার পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরের মুজাফফরাবাদ যান এবং আজাদ কাশ্মীরের পার্লামেন্টেও বক্তৃতাও দেন।

পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে এদিন বিভিন্ন পোস্টারে অধিবাসীদেরকে কাশ্মীরিদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করার আহ্বান জানানো হয়েছে এবং পাকিস্তানের পতাকার সঙ্গে ওড়ানো হয়েছে আজাদ কাশ্মীরের পতাকাও।

১৯৪৭ সালে গ্রেট ব্রিটেন থেকে স্বাধীনতা লাভের পর কাশ্মীর নিয়ে দুইবার যুদ্ধ করেছে ভারত-পাকিস্তান। গত ফেব্রুয়ারি মাসে কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার জেরে দেশদুটি তৃতীয় আরেকটি যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে চলে গিয়েছিল।

পাকিস্তান সরকার এবার ১৫ অগাস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবসকে কালো দিবস হিসাবে পালন করারও সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। কাশ্মীর নিয়ে ভারতের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে পাকিস্তানের সরকারি ভবনগুলোতে এদিন পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে।