১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

আমাজনে আগুন আন্তর্জাতিক সংকট: ম্যাক্রোঁ

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-08-23 10:48:09 BdST

bdnews24

আমাজন বনাঞ্চলে চলতি বছরের রেকর্ড অগ্নিকাণ্ডকে ‘আন্তর্জাতিক সংকট’ হিসেবে বর্ণনা করে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ এ বিষয়টি জি-৭ সম্মেলনের আলোচ্যসূচির শীর্ষে থাকা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন।

“আমাদের ঘর জ্বলছে,” টুইটারে লিখেছেন তিনি।

তার এ মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনেরো।

ম্যাক্রো ‘রাজনৈতিক সুবিধা লাভের’ জন্য আমাজনের অগ্নিকাণ্ডকে ব্যবহার করছেন বলেও তিনি অভিযোগ করেছেন, জানিয়েছে বিবিসি।

জি-৭ সম্মেলনে ব্রাজিল অংশগ্রহণ না করায় সেখানে এ অগ্নিকাণ্ড নিয়ে আলোচনা ‘ভুল স্থানে উপনিবেশবাদী মানসিকতা’ উন্মোচিত করবে, মন্তব্য বোলসোনেরোর।

ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইনপে উপগ্রহ থেকে পাওয়া তথ্যে চলতি বছর ব্রাজিলজুড়ে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৮৫ শতাংশ বেশি অগ্নিকাণ্ডের খবর জানিয়েছে; এ অগ্নিকাণ্ডের বেশিরভাগই সংঘটিত হয়েছে আমাজন অঞ্চলে।

পরিবেশবাদীরা এজন্য আমাজন নিয়ে বোলসোনেরো সরকারের নীতিকে দায়ী করছেন। কট্টর ডানপন্থি এ প্রেসিডেন্ট বন উজাড়ে কাঠুরে ও কৃষকদের উৎসাহিত করছেন বলেও অভিযোগ তাদের।

বোলসোনেরো প্রথম দিকে আমাজনের চলতি বছরের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের জন্য এনজিওকে দায়ী করলেও এ দাবির সমর্থনে কোনো প্রমাণ হাজির করেননি।

বৃহস্পতিবার অবশ্য তিনি তার অবস্থান থেকে সরে এসে ‘কৃষকরাও বনে আগুন দিতে পারে’ এমন মন্তব্যও করেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় চিরহরিৎ বনাঞ্চল আমাজন বিপুল পরিমাণ কার্বন জমা রেখে বৈশ্বিক উষ্ণতার গতিকে খানিকটা শ্লথ রেখেছে।

আমাজনের অগ্নিকাণ্ড এবং পরিস্থিতি নিরসনে ব্রাজিলের বর্তমান সরকারের অবস্থান নিয়ে বিশ্বজুড়েই তীব্র প্রতিবাদ ও ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে।

চলতি সপ্তাহে হতে যাওয়া জি-৭ সম্মেলনের আয়োজক দেশ ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ আমাজনের স্বাস্থ্য নিয়ে বিশ্বের উদ্বিগ্ন হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন।

“আমাজন বনাঞ্চল- যে ফুসফুস আমাদের গ্রহের ২০ শতাংশ অক্সিজেন উৎপাদন করে- তা পুড়ছে। জি-৭ সম্মেলনের সদস্য রাষ্ট্ররা, চলুন আগামী দুইদিন এই জরুরি বিষয়টি নিয়েই আলোচনা করি,” বলেছেন তিনি।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসও বিশ্বের সবচেয়ে বড় চিরহরিত বনাঞ্চলের রেকর্ড অগ্নিকাণ্ড নিয়ে ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছন।

“বৈশ্বিক জলবায়ু সংকটের মধ্যে আমরা অক্সিজেন ও জীববৈচিত্রের অন্যতম প্রধান উৎসের এমন ক্ষতি মেনে নিতে পারি না। আমাজনকে অবশ্যই রক্ষা করতে হবে,” বলেছেন তিনি।