ইরানে ঈদের ছুটিতে অন্য শহরে ঘুরতে না যেতে অনুরোধ

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-21 17:57:29 BdST

bdnews24

প্রাদুর্ভাব কমে এলেও নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ফের বেড়ে যেতে পারে শঙ্কায় ঈদের ছুটিতে নাগরিকদের এক শহর থেকে অন্য শহরে না যেতে অনুরোধ জানিয়েছেন ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সায়ীদ নামাকি।

বৃহস্পতিবার দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের এক প্রতিবেদনে তার এ অনুরোধের কথা জানানো হয়।

রোজার ঈদের ছুটিতে ইরানিদের মধ্যে সাধারণত বিভিন্ন শহরে ঘুরতে যাওয়ার চল আছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এবার এ ধরনের ঘোরাঘুরি শারিরীক দূরত্বের নির্দেশনার লংঘন ঘটতে পারে এবং ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ফের দেখা দিতে পারে বলে নামাকির আশঙ্কা।

“ঈদে অন্য শহরে ভ্রমণ না করতে অনুরোধ করছি আমি। এ ধরনের কিছু আক্রান্তের সংখ্যা বাড়িয়ে দেবে। উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলো থেকে কিংবা সেখানে ঘুরতে যাওয়া উচিত হবে না কারও।

“অসংখ্য এলাকার ৯০ শতাংশের মতো মানুষ এখনো আক্রান্ত হননি। যদি নতুন করে প্রাদুর্ভাব শুরু হয়, তাহলে আমার এবং আমার সহকর্মীদের পক্ষে তা নিয়ন্ত্রণে আনা কঠিন হয়ে পড়বে,” স্বাস্থ্যমন্ত্রী এমনটাই বলেছেন বলে বলা হয় ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে।

সংক্রমণের মাত্রা কমে এলেও বুধবার ইরানে আরও দুই হাজার ৩৪৬ জনের দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

এ নিয়ে দেশটিতে এক লাখ ২৬ হাজার ৯৪৯ জনের শরীরে নতুন করোনাভাইরাস শনাক্ত হল। আক্রান্তদের মধ্যে ৭ হাজার ১৮৩ জনের মৃত্যুর খবরও নিশ্চিত করেছে দেশটির সরকার; এ সংখ্যা মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ।

ইরান পার্লামেন্টের গবেষণা সংস্থার প্রতিবেদনে দেশটিতে প্রকৃত আক্রান্ত-মৃত্যুর সংখ্যা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাবের প্রায় দ্বিগুণ হতে পারে বলে ধারণা দেয়া হয়েছে। 

পরিস্থিতির এমন বেহাল দশার পরও দেশটির সরকার বিধিনিষেধ কঠোর করার কথা বিবেচনা করছে না বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় এমনিতেই বিপর্যস্ত ইরান তাদের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সচলে গত মাসের শেষদিক থেকেই বেশিরভাগ বিধিনিষেধ শিথিল করেছিল।