‘মুখ ফেরানো অভ্যাস হয়ে গেছে’ যুক্তরাষ্ট্রের: চীন

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-06-01 23:37:52 BdST

bdnews24

যুক্তরাষ্ট্রের সবকিছু থেকেই মুখ ফেরানোটা অভ্যাস হয়ে গেছে বলে সমালোচনা করেছে চীন।

যুক্তরাষ্ট্র বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদের সিদ্ধান্ত জানানোর পর চীন সোমবার এ কটাক্ষ করল।

এভাবে যুক্তরাষ্ট্র ক্ষমতার রাজনীতি পরিচালনা এবং একতরফা চলার ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান৷

“বিভিন্ন গ্রুপ বা জোট থেকে বেরিয়ে যাওয়া এবং নানা চুক্তি থেকে মুখ ফেরানোর নেশায় পেয়ে বসেছে যুক্তরাষ্ট্রকে”, বলেছেন তিনি। একে যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থপর আচরণ বলেই বর্ণনা করেছেন লিজিয়ান।

গত শুক্রবারেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প।

নতুন করোনাভাইরাস মহামারী নিয়ে ডব্লিউএইচও চীনকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে পারেনি বলে অভিযোগ ট্রাম্পের। “বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এখন পুরোপুরি চীনের নিয়ন্ত্রণে,” বলেছেন তিনি।

তবে ডব্লিউএইচও এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলছে, তারা করোনাভাইরাসের বিষয়টি নিয়ে কখনোই চীনের পাশে দাঁড়ায়নি৷

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং করোনাভাইরাস নিয়ে লড়তে ডব্লিউএইচও’র জন্য ২শ’ কোটি ডলার অর্থ সাহায্যর ঘোষণা দেওয়ার পরই ট্রাম্প সংস্থাটির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নের সিদ্ধান্ত জানান।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) শনিবার যুক্তরাষ্ট্রকে এ সিদ্ধান্ত আরেকবার ভেবে দেখার আহ্বান জানিয়েছে। আবার চীনও ডব্লিউএইচও-কে আরো সাহায্য দেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছে বিশ্ব সম্প্রদায়ের কাছে।

করোনাভাইরাস নিয়ে চীনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের উত্তেজনা বাড়ার মধ্যে ট্রাম্প সর্বসম্প্রতি ডব্লিউএইচও ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতা নেওয়ার শুরু থেকেই তিনি একাধিক সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন, বেরিয়ে এসেছেন নানা চুক্তি থেকেও।

‘আমেরিকা সর্বাগ্রে’ শপথে ক্ষমতায় আসা ট্রাম্প জাতিসংঘের গুরুত্ব নিয়ে অনেকবারেই প্রশ্ন তুলেছেন। জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদ ছেড়েছেন তিনি।

জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কোর সঙ্গে সম্পর্কও শেষ করেছেন ট্রাম্প। ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ইউনেস্কোর পক্ষপাতমূলক আচরণের অভিযোগ করা ছাড়াও সংস্থাটির মৌলিক সংস্কার দাবি করেছেন তিনি।

এছাড়া, প্যারিস জলবায়ু চুক্তি এবং ইরানের সঙ্গে ২০১৫ সালে করা পরমাণু চুক্তি থেকেও যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন ট্রাম্প।