করোনাভাইরাস ঠেকাতে দক্ষিণ আফ্রিকায় মদ বিক্রি নিষিদ্ধ

  • নিউজডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-07-13 19:45:09 BdST

bdnews24

কোভিড-১৯ সংক্রমণ বাড়তে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকায় ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে দ্বিতীয় দফায় অ্যালকোহল বিক্রি নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

নতুন করে আরোপ হয়েছে কিছু বিধিনিষেধ। জারি হয়েছে রাত্রিকালীন কারফিউ। ঘরের বাইরে মাস্ক পরাও বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

অ্যালকোহল বিক্রি নিষিদ্ধের কারণ ব্যাখ্যায় দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা বলেছেন, এর ফলে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উপর চাপ কমবে।

তিনি বলেন, ‘‘বেশিরভাগ মানুষই ভাইরাসের বিস্তার রোধে দায়িত্বশীল আচরণ করছেন। কিন্তু এখনও কেউ কেউ দায়িত্বহীন আচরণ করছেন এবং পরষ্পরকে সম্মান ও সুরক্ষা দিচ্ছেন না।”

‘‘তারা পার্টি করছে, মাতলামি করছে এবং মাস্ক ছাড়াই বাইরে ভিড়ের মধ্যে ঘোরাঘুরি করছে।”

বিবিসি জানায়, এর আগে অ্যালকোহল বিক্রির ওপর তিনমাসের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। সে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই আবার নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ হল।

মদ নিয়ে মারামারি, গৃহনির্যাতন এবং সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে দেশজুড়ে মানুষের অতিরিক্ত মদ্যপান বন্ধে সরকার এ পদক্ষেপ নিয়েছে। তবে দেশটির বিয়ার ও ওয়াইন উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলো এতে তাদের ব্যবসায় বিশাল লোকসানে পড়ার কথা জানিয়েছে।

অথচ, মদ বিক্রি প্রথম দফায় তিনমাস নিষিদ্ধ থাকার সময়ে দক্ষিণ আফ্রিকাজুড়ে হাসপাতালগুলোর জরুরি বিভাগে রোগী ভর্তি উল্লেখযোগ্য হারে কমেছিল বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসক ও পুলিশ কর্মকর্তারা।

দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত প্রায় তিন লাখ মানুষ কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছে। মোট মৃত্যু চার হাজারের বেশি। যা এ বছরের শেষ নাগাদ ৫০ ‍হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা সরকারি কর্মকর্তাদের।

করোনাভাইরাস মহামারীতে আফ্রিকা মহাদেশে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত দেশগুলোর অন্যতম দক্ষিণ আফ্রিকা।

ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া প্রতিরোধে দেশটিতে জারি থাকা জরুরি অবস্থার মেয়াদ আগামী ১৫ অগাস্ট পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া, স্থানীয় সময় রাত ৯টা থেকে ভোর ৪টা পর্যন্ত দেশজুড়ে কারফিউ জারি থাকবে।