অস্ট্রেলিয়ার কাছে ক্ষমা চাইবে না চীন

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-12-01 18:43:41 BdST

bdnews24

টুইটারে ভুয়া ছবি পোস্ট করা নিয়ে চীন-অস্ট্রেলিয়া উত্তেজনা আরও বাড়ছে।ওই ছবির জন্য অস্ট্রেলিয়ার কাছে ক্ষমা চাইতে অস্বীকৃতি জানিয়ে উল্টো দেশটির কড়া সমালোচনা করেছে চীন।

বেইজিং বলেছে, আফগানিস্তানে অস্ট্রেলীয় সেনাদের যুদ্ধাপরাধ থেকে ‘মানুষের দৃষ্টি অন্যদিকে সরিয়ে নেওয়ার’ চেষ্টা চালাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া।

চীনের সরকারি মুখপাত্রের টুইটার অ্যাকাউন্টে অস্ট্রেলীয় এক সেনার আফগান শিশু হত্যার ভুয়া ছবি পোস্ট করায় বেইজিংকে ক্ষমা চাইতে বলেছিল অস্ট্রেলিয়া।

ছবিটিকে ‘অবমাননাকর’ বলে নিন্দা করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। চীন এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে বাড়তে থাকা রাজনৈতিক উত্তেজনার মধ্যে সোমবার এ ছবি পোস্টের ঘটনা ঘটে।

বিবিসি জানায়, মঙ্গলবার অস্ট্রেলিয়ার চীনা দূতাবাস ওই ঘটনার জন্য ক্ষমা না চেয়ে পাল্টা আক্রমণ করে এক বিবৃতিতে বলেছে, “এ অভিযোগের পেছনে উদ্দেশ্য দুটি। এক, অস্ট্রেলিয়ার কিছু সেনার ভয়াবহ নৃশংস কর্মকাণ্ড থেকে মানুষের দৃষ্টি অন্যদিকে সরিয়ে নেওয়া। আর দুই, দু’দেশের মধ্যকার সম্পর্কের অবনতির জন্য চীনকে দায়ী করা। তাছাড়া, দেশের ভেতর জাতীয়তাবাদ উসকে দেওয়ার চেষ্টাও হতে পারে এটি।”

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “আফগানিস্তানে অস্ট্রেলীয় সেনারা যে অপরাধ করেছে অস্ট্রেলিয়াকে এর মুখোমুখি হওয়া এবং অপরাধীদের জবাবদিহি করার পাশাপাশি ভুক্তভোগীদের জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার পরামর্শ দিচ্ছি।”

‘অবমাননাকর’ টুইটার পোস্ট, চীনকে ক্ষমা চাইতে বলল অস্ট্রেলিয়া  

এ মাসের শুরুতেই অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্স ফোর্স (এডিএফ) তাদের প্রকাশিত তদন্ত প্রতিবেদনে বলেছে,২০০৯ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে বন্দি, কৃষক ও বেসামরিক আফগান নাগরিকদেরকে হত্যার ঘটনায় ২৫ অস্ট্রেলীয় সেনা বেআইনিভাবে সরাসরি কিংবা পরোক্ষোভাবে অংশ নিয়েছিল।

অস্ট্রেলীয় সেনাদের এই অপকীর্তি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পুলিশী তদন্ত শুরু হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া তাদের বিশেষ বাহিনীর অন্তত ১৩ সেনাকে চাকরিচ্যুত করার উদ্যোগও নিয়েছে।

এ পরিস্থিতির মধ্যেই চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান তার টুইটার একাউন্টে একটি বানোয়াট ছবি পোস্ট করেন। এতে দেখা যায়, এক অস্ট্রেলীয় সেনা একটি আফগান শিশুর গলায় রক্তমাখা ছুরি ধরে আছে। আর শিশুটি একটি ভেড়া ধরে আছে।

মঙ্গলবার নিউজিল্যান্ডও চীনের এমন ছবি পোস্ট করা নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বেইজিং একজন সেনার যে অবাস্তব ছবি পোস্ট করেছে তা নিয়ে তার সরকার উদ্বিগ্ন।