ক্যাপিটলে হামলা: যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ

  • নিউজ ডেস্ক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-01-16 18:48:31 BdST

bdnews24

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ও মানবসেবা মন্ত্রী অ্যালেক্স অ্যাজার পদত্যাগ করেছেন, কারণ হিসেবে তিনি মার্কিন ক্যাপিটল ভবনে হামলার কথা উল্লেখ করেছেন।

শুক্রবার সিএনএনে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ‘ক্রিয়াকলাপ ও বাগাড়ম্বর’ প্রশাসনের উত্তরাধিকারকে কলঙ্কিত করেছে বলে পদত্যাগ পত্রে অভিযোগ করেছেন তিনি। 

বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছে ১২ জানুয়ারি অ্যাজার পদত্যাগপত্র পেশ করেছেন এবং শুক্রবার এর একটি কপি তাদের হাতে এসেছে বলে সিএনএন জানিয়েছে।

ট্রাম্পকে সম্বোধন করা চিঠিটিতে অ্যাজার জানিয়েছেন, গত চার বছরে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ও মানবসেবা বিভাগ সেরা সাফল্য অর্জন করেছে বলে মনে করেন তিনি।

“দুর্ভাগ্যজনকভাবে, নির্বাচনের পর ক্রিয়াকলাপ ও বাগাড়ম্বর, বিশেষকরে গত সপ্তাহের, এই প্রশাসনের এসব ও অন্যান্য ঐতিহাসিক উত্তরাধিকারকে কলঙ্কিত করার হুমকিতে ফেলেছে,” লিখেছেন তিনি।

“ক্যাপিটলে হামলা ছিল আমাদের গণতন্ত্রের ওপর এবং ক্ষমতার শান্তিপূর্ণ হস্তান্তরের ঐতিহ্য যা বিশ্বে আমেরিকার যুক্তরাষ্ট্র প্রথম প্রবর্তন করেছে তার ওপর আক্রমণ,” চিঠিতে অ্যাজার লিখেছেন, যা নিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস প্রথম প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল।

“আমি আপনাকে (ট্রাম্প) দ্ব্যর্থহীনভাবে যে কোনো ধরনের সহিংসতার নিন্দা অব্যাহত রাখার, কেউ যেন ওয়াশিংটন বা অন্য কোথাও অভিষেক অনুষ্ঠান বিঘ্নিত করার উদ্যোগ না নেয় তার দাবি জানানোর এবং ২০ জানুয়ারি শান্তিপূর্ণ ও সুশৃঙ্খভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরে অকপটভাবে সমর্থন দিয়ে যাওয়ার অনুরোধ করছি,” বলেছেন তিনি। 

২০ জানুয়ারি নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের টিম দায়িত্ব গ্রহণ করা পর্যন্ত মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন বলেও অ্যাজার জানিয়েছেন। 

সিএনএন জানিয়েছে, অ্যাজার প্রথমেই করোনাভাইরাস মহামারীর কথা উল্লেখ করেছেন আর এখন পর্যন্ত এটি ট্রাম্পের শাসনের সবচেয়ে বড় পরিণতি। এই মহামারীতে যুক্তরাষ্ট্রের তিন লাখ ৯০ হাজার বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছে এবং আক্রান্ত হয়েছেন দুই কোটি ৩০ লাখেরও বেশি মানুষ। 

নিজের চিঠিতে অ্যাজার এসব সংখ্যা উল্লেখ করেননি; কেন্দ্রীয় সরকার কয়েক সপ্তাহ ধরে মহামারীর সতর্কর্তা জানাতে ব্যর্থ হয়েছিল বা ব্যাপকভিত্তিক শনাক্তকরণ পরীক্ষা চালু করতে অনেক দেরী করে ফেলেছিল, ওই সময় যা করা হলে করোনাভাইরাসের বিস্তার অনেক ধীর করে দেওয়া যেত বলে মত জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের- এসব নিয়েও কোনো কথা বলেননি।   

বরং চিঠিতে অ্যাজার তার মন্ত্রণালয়ের পদক্ষেপ ‘দ্রুত ও আগাসী’ ছিল বলে দাবি করেছেন।