কোভিড-১৯: অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকায় অনুমোদন পাকিস্তানের

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-01-16 22:20:09 BdST

bdnews24

পাকিস্তান জরুরি ব্যবহারের জন্য অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাস টিকার অনুমোদন দিয়েছে।

শনিবার দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফয়সল সুলতানের বরাতে একথা জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধারাবাহিকভাবে বেড়ে চলা পাকিস্তানে জরুরি ব্যবহারের জন্য কর্তৃপক্ষের সবুজ সংকেত পাওয়া প্রথম টিকা এটি।

পাকিস্তান জানিয়েছে, তারা একাধিক উৎস থেকে ভ্যাকসিন সংগ্রহ করবে।

“পাকিস্তানের ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (ডিআরএপি) অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড টিকাকে জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে,” রয়টার্সকে বলেছেন মন্ত্রী সুলতান।

চীন থেকে সিনোফার্মের টিকার ১০ লাখেরও বেশি ডোজ পাওয়ার ক্ষেত্রে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সুলতান বলেন, “দ্বিপাক্ষিক ক্রয় চুক্তির পাশাপাশি কোভ্যাক্স ফ্যাসালিটির মাধ্যমে আমরা পশ্চিমা ও অন্যান্য টিকা পাওয়ার প্রক্রিয়ার মধ্যে আছি।”

 চীনের টিকার বিস্তারিত তথ্য পাওয়ার পর সেটি পর্যলোচনা করেছে ডিআরএপি, এখন টিকাটি অনুমোদন পাওয়ার অপেক্ষায় আছে।

পাকিস্তান অনেকগুলো টিকা প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। সুলতান জানিয়েছেন, চীনের ক্যানসাইনোবায়োর সঙ্গে করা একটি সমঝোতা চুক্তির আওতায় পাকিস্তান ‘কোটির ওপরে’ টিকা পেতে পারে।

পাকিস্তানে ক্যানসাইনোবায়োর এডি৫-এনকোভ কোভিড-১৯ টিকার তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা প্রায় শেষ প্রান্তে আছে। 

সুলতান বলেন, “কার্যকারিতাই মূল বিষয়। অনেকগুলো টিকার কার্যকারিতার ধাপগুলো পর্যবেক্ষণ করছি আমরা।” 

ক্যানসাইনোর প্রাথমিক ফলাফল মধ্য-ফেব্রুয়ারির মধ্যে আসতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি। রাশিয়ার স্পুটনিক ভি টিকার সঙ্গেও জড়িত হওয়ার বিষয়টি পাকিস্তান বিবেচনা করছে বলে জানিয়েছেন সুলতান।

পাকিস্তানে এ পর্যন্ত শনাক্ত করোনাভাইরাস রোগীর সংখ্যা পাঁচ লাখ ১৬ হাজার এবং মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১১ হাজার জনের।