চেক প্রজাতন্ত্রকে কঠোর জবাবের হুঁশিয়ারি রাশিয়ার

  • >> রয়টার্স
    Published: 2021-04-19 00:34:54 BdST

bdnews24

চেক প্রজাতন্ত্রের ১৮ রুশ কূটনীতিক বহিষ্কারের পদক্ষেপের কঠোর পাল্টা জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে রাশিয়া।

২০১৪ সালে এক গোলাবারুদের গুদামে বিস্ফোরণের ঘটনায় রুশ গোয়েন্দা সংস্থা জড়িত থাকার অভিযোগে চেক প্রজাতন্ত্র এই কূটনীতিকদের বহিষ্কার করছে।

রাশিয়া এতে চরম ক্ষুব্ধ হয়েছে এবং এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন ও অযৌক্তিক বলে উড়িয়ে দিয়েছে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, আগে তারা বিস্ফোরণের জন্য গুদাম মালিকদের দোষারোপ করেছিল। এখন রাশিয়াকে দোষারোপ করা অযৌক্তিক। মস্কো এর বিরুদ্ধে কঠোর জবাব দেবে।

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় রোববার এক বিবৃতিতে বলেছে, “আমরা পাল্টা ব্যবস্থা নেব, যাতে দুই দেশের মধ্যকার স্বাভাবিক সম্পর্কের ভিত ধ্বংস করে ফেলার দায়টা উস্কানিদাতাদের পুরোপুরি বোধগম্য হয়।”

রাশিয়ার ১৮ কূটনীতিককে বহিষ্কার করছে চেক প্রজাতন্ত্র  

সম্প্রতি কয়েক বছরে রাশিয়া-বিরোধী কর্মকাণ্ডের ধারাবাহিকতাতেই চেক প্রজাতন্ত্র ওই বৈরি পদক্ষেপ নিয়েছে উল্লেখ করে বিবৃতিতে অভিযোগ করে বলা হয়, “রাশিয়ার বিরুদ্ধে সদ্যই মার্কিন নিষেধাজ্ঞার প্রেক্ষাপটে প্রাগ এখন যুক্তরাষ্ট্রকে তুষ্ট করার চেষ্টা করছে।”

চেক প্রজাতন্ত্রের রাজধানী প্রাগের প্রায় ৩৩০ কিলোমিটার দূরে ভার্বেটিস শহরে ২০১৪ সালের অক্টোবরে কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটে। এতে বেসরকারি কোম্পানির দুইজন কর্মকর্তা নিহত হন।

চেক প্রজাতন্ত্র বলছে, যুক্তরাজ্যে ২০১৮ সালে বিষাক্ত রাসায়নিক 'নোভিচক' হামলার জন্য যে দুই রুশ গুপ্তচরকে সন্দেহ করা হয়, তারাই ভার্বেটিসের গোলাবারুদের গুদামে বিস্ফোরণের ঘটনায় জড়িত।

ঘটনাটির তদন্তে রাশিয়ার একটি গোয়েন্দা সংস্থার যোগসূত্র পাওয়ার পরই চেক প্রজাতন্ত্র রুশ কূটনীতিকদের বহিষ্কারের পদক্ষেপ নেয়।

বিস্ফোরণের ঘটনায় রাশিয়াকে সন্দেহ করার বিষয়টি চেক প্রজাতন্ত্র এরই মধ্যে নেটো এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নকেও (ইইউ) জানিয়েছে। ইইউ পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা সোমবার বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় বসবেন।