পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ক্ষীণ আশা নিয়ে বাইডেন-পুতিন বৈঠক শুরু

  • >> রয়টার্স
    Published: 2021-06-16 19:44:25 BdST

bdnews24
ছবি- স্ক্রিনশট: ইউটিউব ভিডিও

যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার সম্পর্ক তলানিতে থাকার মধ্যে অগ্রগতির ক্ষীণ আশা নিয়ে সুইজারল্যান্ডের জেনিভায় শুরু হয়েছে দুই দেশের প্রেসিডেন্টের বৈঠক।

বুধবার জেনিভার গ্র্যান্ড ভিলার সামনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন হাত মেলানোর মধ্য দিয়ে তাদের প্রথম মুখোমুখি বৈঠকের সূচনা করেছেন।

বহুল প্রতিক্ষীত এ বৈঠক ৪/৫ ঘন্টা কিংবা তার বেশি সময় ধরে চলতে পারে। আলোচনায় দুই নেতার মধ্যে ঘোর মতবিরোধ দেখা দিতে পারে আর তা সমাধান হওয়ার সম্ভাবনাও ক্ষীণ বলে মনে করা হচ্ছে।

যদিও উভয় নেতাই বলেছেন, অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ থেকে শুরু করে সাইবার হামলা, নির্বাচনে হস্তক্ষেপ এবং ইউক্রেইনসহ নানা বিষয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ থাকলেও বৈঠকের আলোচনা দুইদেশের সম্পর্ককে স্থিতিশীলতার দিকে নিয়ে যাবে বলেই তারা আশা করেন।

বৈঠকের জন্য ভিলার ভেতরে ঢোকার আগে পুতিন এবং বাইডেন একে অপরের সঙ্গে কিছু কথা বলেন। তবে বৈঠকে তারা কোনও চুক্তিতে উপনীত হবেন কিনা সে ব্যাপারে নিশ্চিত করে কিছু জানাতে পারেননি পুতিনের বৈদেশিক নীতি বিষয়ক উপদেষ্টা ইউরি উশাকভ।

ওদিকে, মার্কিন কর্মকর্তারাও এ বৈঠক থেকে উল্লেখযোগ্য কোনও অগ্রগতি আশা করছেন না। তবে ছোটখাট কিছু বিষয়ে সমঝোতা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। দুই নেতার মধ্যে নির্বাচনে হস্তক্ষেপ, সাইবার হামলা, অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ, মানবাধিকারসহ আরও কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা হতে পারে।

বাইডেনের পাশে বসে পুতিন বলেছেন, “প্রেসিডেন্ট, আজ আপনার এই বেঠকের উদ্যোগের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ার সম্পর্কের মধ্যে অনেক বিষয়ই জমে আছে যেগুলোর জন্য সর্বোচ্চ পর্যায়ে বৈঠকের প্রয়োজন।”

ওদিকে, বাইডেন বলেছেন, তারা একে অপরের সঙ্গে সহযোগিতার ক্ষেত্র এবং পারস্পরিক স্বার্থের বিষয়গুলো নির্ধারণ করার চেষ্টা করবেন। “মুখোমুখি বৈঠক করাটা সবসময়ই ভাল,” বলেন তিনি।

ঊর্ধ্বতন এক মার্কিন কর্মকর্তা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র সেইসব ক্ষেত্রই খুঁজে বের করতে চায় যেখানে রাশিয়ার সঙ্গে একযোগে কাজ করে জাতীয় স্বার্থকে এগিয়ে নেওয়া যায় এবং বিশ্বকে নিরাপদ রাখা যায়।