২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০ ফাল্গুন ১৪২৫

শীতলক্ষ্যায় ডুবানো সেই জেলের লাশ উদ্ধার

  • গাজীপুর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-01-16 23:35:52 BdST

bdnews24

গাজীপুরের কালীগঞ্জে এক জেলেকে হত্যা করে শীতলক্ষ্যা নদীতে ডুবিয়ে দেওয়ার ১৫ দিন পর হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরিরা।

বুধবার বিকালে টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা বোরহান উদ্দিনের (৪৫) লাশ উদ্ধার করেন।

বোরহান কালীগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ নারগানা এলাকার আলী আজগরের ছেলে।

স্থানীয় জামালপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান খান ওরফে ফারুক মাস্টার ও বোরহানের শ্যালক মো. মামুন জানান, গত ২ জানুয়ারি পরিমল, তার ছেলে পাপন চন্দ্র ও প্রতিবেশী কমলকে সঙ্গে নিয়ে শীতলক্ষ্যা নদীতে ধরতে বাড়ি থেকে বের হন বোরহান। পরদিন বোরহান বাড়িতে না ফেরায় তার পরিবারের লোকজন সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজ করেন।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আবু বকর বলেন, ৬ জানুয়ারি পলাশ থানায় ও ৭ জানুয়ারি কালীগঞ্জ থানায় দুটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

“মঙ্গলবার এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পরিমল ও তার ছেলে পাপনসহ অলককে সন্দেহজনকভাবে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাহাবুবুর রহমান ফারুক মাস্টার আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

“এক পর্যায়ে তারা পূর্বশত্রুতার জেরে বোরহানকে হত্যা করে লাশ জালে পেঁচিয়ে ইট-পাথর বেঁধে শীতলক্ষ্যা নদীতে পানিতে ডুবিয়ে দেওয়ার কথা স্বীকার করেন।”

ওসি বলেন, আটককৃতদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার বিকালে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা বোরহানের সন্ধানে শীতলক্ষ্যা নদীতে তল্লাশি অভিযান শুরু করেন।

“বুধবার বিকালে নৌকার সঙ্গে জাল দিয়ে পেঁচিয়ে হাত-পা বাঁধা তার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয় নদী থেকে।”

ওসি আরও জানান, এ ঘটনায় কালীগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ নারগানা এলাকার পরিমল (৫০), তার ছেলে পাপন (২০) ও তাদের প্রতিবেশী অলককে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রাতে নিহতের স্ত্রী তানিয়া সুলতানা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।


ট্যাগ:  গাজীপুর জেলা  ঢাকা বিভাগ