২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

‘অবৈধ’ বিদ্যুৎ সংযোগে প্রাণ গেল পিতা-পুত্র ৩ জনের

  • পঞ্চগড় প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-07-21 19:45:53 BdST

bdnews24
শহীদুল ইসলামের বাড়িতে শোকার্ত প্রতিবেশীদের ভিড়

‘অবৈধ’ বিদ্যুৎ সংযোগের দুর্ঘটনায় বাবা-ছেলে তিনজন নিহত হয়েছেন পঞ্চগড়ে।

সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের পানিমাছ পুকুরি গ্রামে শনিবার এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন শহীদুল ইসলাম (৬০), তার দুই ছেলে নাজিরুল ইসলাম (৩০) ও আসাদুর রহমান (১৮)।

শহিদুল ইসলামের ছোট ভাই নাসির উদ্দিন জানান, শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নাজিরুল জাল নিয়ে বাড়ির পাশের জলাশয়ে মাছ ধরতে যান। প্রায় এক ঘণ্টা পরও তিনি ফিরে না আসায় শহিদুল ইসলাম ও আসাদুর তাকে খুঁজতে গিয়ে ওই জলাশয়ে নামেন।

নাসির বলেন, কিছুক্ষণ পর নাতি মামুন জলাশয়ে তিনজনকে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করে ওঠে। তার চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে দেখেন পানিতে তারা তিনজনই ছটফট করছিলেন। সেখানে তারা আশ্রয়ন প্রকল্পের একটি বাড়ি থেকে টেনে নেওয়া পার্শ্ববর্তী একটি বাড়ির বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে থাকতেও দেখেন।

“স্থানীয়রা বিদ্যুতের সংযোগ বন্ধ করে দিয়ে তাদের উদ্ধার করে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তিনজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।”

সাবেক ইউপি সদস্য রশিদুল ইসলাম বলেন, পানিমাছ পুকুরি গ্রামে থাকা আশ্রায়ণ প্রকল্পের অনেক বাড়িতে বৈধভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ রয়েছে। কিন্তু পার্শ্ববর্তী মাহানপাড়া গ্রামে বৈধ কোনো সংযোগ ছিল না।

“আশ্রায়ণ প্রকল্প্রের কিছু কিছু সংযোগ থেকে অবৈধভাবে পার্শ্ব সংযোগ নিয়ে কিছু বাড়িতে বিদুৎ ব্যবহার করা হয়। পুকুরে ছিঁড়ে পড়া তারটি ছিল সেরকম একটি অবৈধ সংযোগের তার।”

তবে দীর্ঘদিন ধরে এমন অবৈধ সংযোগের ব্যবহার চললেও পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। বর্তমানেও বাঁশের খুঁটি ও অনুমোদনহীন তার দিয়ে এমন একাধিক অবৈধ সংযোগ আছে বলে তিনি জানান।

সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আল তারিক বলেন, গ্রামে গ্রামে বিদ্যুতের অবৈধ সংযোগের বিষয়টি বেশ ওপেন সিক্রেট। সাম্প্রতিক সময়ে অবৈধ সংযোগের কারণে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একাধিক মুত্যু ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে অবহিত করা হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এজন্যই তিনজনের মর্মান্তিক মুত্যু ঘটেছে।

তিনি দ্রুত বিশেষ অভিযান চালিয়ে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পঞ্চগড় আঞ্চলিক কার্যালয়ের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. আসাদুজ্জামান বলেন, “অবৈধ সংযোগে মৃত্যুর ঘটনাটি আমরা শুনেছি। এজন্য দাপ্তরিকভাবে তদন্ত চলছে।”

তিনি বলেন, নিয়মিত অভিযান চালিয়ে অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও জরিমানা করা হলেও পরবর্তীতে সেগুলো আবার চালু করা হয়।

পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এহেতেশাম রেজা বলেন, তাৎক্ষণিক নিহতদের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা অর্থ সহায়তা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।


ট্যাগ:  রংপুর বিভাগ  পঞ্চগড় জেলা